ঘুর্নিঝড় বুলবুলের তান্ডবে খানজাহান আলী থানা এলাকার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

0
356

ফুলবাড়ীগেট (খুলনা) প্রতিনিধি:
ঘুর্নিঝড় বুলবুলের তান্ডবে খানজাহান আলী থানা এলাকার মিরের ডাঙ্গা,জামিয়া কারিমিয়া মাদরাসা, যোগীপোল, জাব্দিপুর, গিলাতলা গাজী পাড়া, গিলাতলা ৬ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণপাড়া, শেখপাড়া, শিরোমণি পূর্বপাড়া, বিসিক শিল্প নগরী, মশিয়ালীসহ এলাকায় গত বৃহস্পতিবার থেকে টানা বৃষ্টির পর রবিবার সকাল ১০টা পর্যন্ত ঘুর্নিঝড় বুলবুল তান্ডব চালায়। এতে অধিকাংশ কাঁচা ঘরবাড়ী ও গাছ উপড়ে পড়েছে। ফুলবাড়ীগেটস্থ মীরেরডাঙ্গা পেট্টোলিয়াম সার্ভিসের সামনে তারকাটা ফ্যাক্টরীর গাছ ও পুলিশ ট্রেনিং সেন্টারের সামনে খুলনা যশোর মহাসড়কের উপর গাছ পড়ে বেলা ১টা পর্যন্ত মহাসড়কের যান চলাচল বন্ধ থাকে। মীরেরডাঙ্গা টিবি হাসপাতাল রোড মাহেন্দ্র ড্রাইভার সোহরাব হোসেনের ঘরের উপর গাছ পড়ে প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়। মিরেরডাঙ্গা জামিয়া কারিমিয়া মাদরাসার ছাত্রাবাসের ঘরের টিন দুমড়ে মুছড়ে গেছে এবং রবিবার সকাল ১১টায় খানজাহান আলী থানা অফিসার্স ইনচার্জ মোঃ শফিকুল ইসলাম ঘুর্নিঝড় বুলবুলের ক্ষয়ক্ষতি পর্যবেক্ষনের জন্য শিরোমণি বিসিক শিল্পনগর এলাকায় বের হলে একটি বিশাল আকৃতির গাছ উপড়ে পড়ে তার গাড়ির সামনে এসে পড়লে এতে অল্পের জন্য গাড়ী এবং তিনি প্রাণে রক্ষা পান। এছাড়া শিরোমনি ডাকাতিয়া দিন মজুর শেখ সামছুর রহমানের বসতঘরে গাছ পড়ে ব্যাপক ক্ষতি হয় এসময় তিনি মারাত্বক আহত হন। শিরোমনি পশ্চিমপাড়া মৃত তুরফান হোসেনের পুত্র আকরাম হোসেনের পোল্ট্রি ফার্মে গাছ পড়লে ফার্মে থাকা অধিকাংশ মুরগি মারা যায় এতে প্রায় ২ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে দাবি করেন। এলাকায় বিদ্যুৎ লাইনের উপর গাছ পড়ে গত শনিবার দিবাগত রাত থেকে রবিবার রাত ১০ টা পর্যন্ত বিদ্যুৎহীন হয়ে পড়ে এবং নি¤œাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। তবে প্রসাশন ও স্থানীয়দের উদ্যোগে গাছপালা সরানোর কার্যক্রম চলছে, এছাড়া এলাকার জনপ্রতিনিধিরা সরেজমিনে পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থদের শান্তনা দেন।