গ্রীণ-ক্লিন সিটি খুলনা গড়তে ধানের শীষে ভোট চাইলেন মঞ্জু

0
588

প্রেস বিজ্ঞপ্তি
নির্বাচনী অঙ্গীকার ‘গ্রিন সিটি ক্লিন সিটি’ বাস্তবায়ন করতে নগরবাসীর দোয়া সমর্থন ও ভোট প্রার্থনার মধ্যে দিয়ে কেসিসি নির্বাচনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট সমর্থিত নজরুল ইসলাম মঞ্জু আনুষ্ঠানিক নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন।
সকাল পৌনে ১০ টার দিকে বয়রাস্থ আঞ্চলিক নির্বাচন অফিসে প্রতীক বরাদ্দ হয়। ধানের শীষ প্রতীক হাতে বেরিয়ে এসে নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেন, গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে আনতে নগরবাসী তাদের ভোট দেয়ার জন্য উদগ্রিব হয়ে আছে। তাদের পছন্দের প্রার্থীকে পছন্দের প্রতীকে তারা ভোট দিতে চায়। নির্বাচন কমিশনের কাছে দাবি থাকবে, অবাধ, সুষ্ঠু, গ্রহণযোগ্য নির্বাচন আয়োজনে সর্বাত্মক প্রস্ততি নিন। মানুষ যাতে নির্বিঘেœ ভোট দিতে পারে তার ব্যবস্থা করুন। কালো টাকা, পেশী শক্তি ও দুর্বৃত্তরা যাতে কোন ধরনের প্রভাব ফেলতে না পারে। নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে ধানের শীষের বিজয় সুনিশ্চিত বলে দাবি করেন তিনি।
সকাল সাড়ে ১০ টায় কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে আসেন নজরুল ইসলাম মঞ্জু। এখানে আসন্ন নির্বাচনে ভালো ফলাফল অর্জনের জন্য মহান রাব্বুল আলামিনের সহায়তা কামণা করে বিশেষ দোয়া মোনাজাত করা হয়। দোয়া শেষে বিএনপি, ২০ দলীয় জোট এবং অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের শত শত নেতাকর্মী নিয়ে নগরীর প্রাণকেন্দ্রে গণসংযোগ করেন তিনি। এ সময় পথচারী, যানবাহনের যাত্রী, অফিস আদালত, ব্যাংক-বীমা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অবস্থানরতদের হাতে ধানের শীষের লিফলেট তুলে দেয়া হয়। কর্মীরা হ্যান্ড মাইকে ধানের শীষে ভোট দেয়ার আহবান জানান।
এর আগে সকাল সাড়ে ৯ টায় নজরুল ইসলাম মঞ্জু বিএনপিসহ ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতাদের নিয়ে টুটুপাড়া কবরস্থানে যান। সেখানে চিরনিদ্রায় শায়িত তার পিতা-মাতার কবর জিয়ারত করেন।
এ সব কর্মসূচিতে তার সাথে উপস্থিত ছিলেন ২০ দলীয় জোট নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী এ্যাড. এস এম শফিকুল আলম মনা, ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থীর নির্বাচন সমন্বয় কারী সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাতয়াত হোসেন, সাবেক এমপি কাজী সেকেন্দার আলী ডালিম, সাবেক এমপি সৈয়দা নার্গিস আলী, জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য রবিউল ইসলাম রবি, খেলাফত মজলিসের নগর সভাপতি মাওলানা গোলাম কিবরিয়া, বিজেপির নগর সভাপতি এ্যাড. লতিফুর রহমান লাবু, পিপলস লীগের নগর সভাপতি ডাঃ আফতাব হোসেন, সাবেক এমপি অধ্যাপক ডাঃ গাজী আব্দুল হক, বিএনপি নেতা আমীর এজাজ খান, মোল্লা আবুল কাশেম, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, জলিল খান কালাম, বিজেপির নগর সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দিন সেন্টু, জামায়াতের নগর সহকারী সেক্রেটারি খান গোলাম রসুল, বিএনপি নেতা স ম আব্দুর রহমান, ফখরুল আলম, খান জুলফিকার আলী জুলু, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, মোল্লা খায়রুল ইসলাম, মোস্তফা উল বারী লাভলু, এ্যাড. তছলিমা খাতুন ছন্দা, আবু হোসেন বাবু, সিরাজুল হক নান্নু, আসাদুজ্জামান মুরাদ, শফিকুল আলম তুহিন, আজিজুল হাসান দুলু, মুজিবর রহমান, মহিবুজ্জামান কচি, এ্যাড. গোলাম মাওলা, মোল্লা মোশারফ হোসেন মফিজ, মুর্শিদুর রহমান লিটন, এহতেশামুল হক শাওন, ইউসুফ হারুন মজনু, একরামুল কবির মিল্টন, একরামুল হক হেলাল, হাসানুর রশিদ মিরাজ, শামসুজ্জামান চঞ্চল, শামীম কবীর, নাজমুল হুদা চৌধুরী সাগর, শরিফুল ইসলাম বাবু, আব্দুল মান্নান মিস্ত্রি, হেলাল আহমেদ সুমন, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, অহেদুজ্জামান রানা, মোল্লা সাইফুর রহমান, জসিমউদ্দিন লাবু, নিঘাত সীমা প্রমুখ। দোয়া মোনাজাত পরিচালনা করেন ওলামা দল নেতা মাওলানা শফিকুল ইসলাম।