গ্রামীণফোনের ১৮০ কর্মীকে কাজে ফিরিয়ে নেয়ার দাবিতে সারাদেশে মানববন্ধন

0
37

খবর বিজ্ঞপ্তি:
স্থায়ী ১৮০ জন কর্মীকে কাজে ফিরিয়ে নেয়ার দাবিতে গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন শনিবার বিকাল তিনটা থেকে পাঁচটা পর্যন্ত সারাদেশে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে ।
করণা মহামারীর শুরুর দিকে গত বছরের ৩১শে মে হতে টেকনোলজি ও কমার্শিয়াল ডিভিশনের ১৮০ জন কর্মীকে তাদের স্থায়ী কাজ থেকে অপসারন করে কর্মহীন করে রেখেছে ও অদক্ষ তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে সংবেদনশীল কাজ গুলো চালিয়ে নিচ্ছে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউ চলছে, এরইমধ্যে এসব দক্ষ কর্মীরা কর্মহীন অবস্থায়, পরিবার-পরিজন নিয়ে শংকার মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। এই সব কর্মীকে তাদের কাজে ফিরিয়ে নেয়ার দাবিতে গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষের কাছে জোরালোভাবে শুরু থেকেই দাবি জানিয়ে আসছে। গ্রামীণফোন কর্তৃপক্ষ এই বিষয়টির এখন পর্যন্ত কোনো সুরাহা না করায়, গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়ন তাদের ধারাবাহিক আন্দোলন কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজকে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচিতে গ্রামীণফোন এমপ্লয়িজ ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক মিয়া মোঃ শফিকুর রহমান মাসুদসহ ইউনিয়নের অন্যান্য নেতা কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বক্তারা অতিসত্বর কর্মহীন সকলকে কাজে ফেরত নেয়া এবং চাকুরীর নিশ্চয়তা বিধানের জন্য গ্রামীণফোন এর কাছে জোরালো দাবি জানান। গ্রামীণফোন এমপ্লয়ীজ ইউনিয়ন এর ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফজলুল হক বলেন যে ১৮০ জন কর্মীকে তাদের কাজ করা থেকে বিরত রাখা হয়েছে তাদেরকে অতিসত্বর কাজে ফিরিয়ে নিতে হবে। যতদিন এই দাবি গ্রামীণফোণ ম্যানেজমেন্ট মেনে না নিবে, ততদিন জিপিইইউ গ্রামীনফোন এর সর্বস্তরের কর্মীদের সাথে নিয়ে সারা বাংলাদেশের শ্রমজীবী মানুষ কে একত্রিত করে আন্দোলন চালিয়ে যাবে বলেও ইউনিয়ন এর নেতৃবৃন্দগণ ঘোষণা করেন । এছাড়াও খুলনা, চট্টগ্রাম, বরিশাল, রাজশাহী, রংপুর, সিলেট, কুমিল্লা, মায়মসিংহ, কুষ্টিয়া, চুয়াডাঙ্গা, জয়পুরহাট, নড়াইল, কিশোরগঞ্জ, গোপালগঞ্জ, গলাচিপা, দিনাজপুর, বগুড়ায় একযোগে এ কর্মসূচি পালিত হয়। উক্ত স্থানগুলোতে আঞ্চলিক নেতা-কর্মীরা উপস্থিত ১৮০ জন কর্মীকে দ্রæত কাজে ফেরানোর জোরালো দাবি জানান। উল্লেখ্য যে, এ করোনা মহামারির মধ্যেও ধারাবাহিকভাবে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন দেশজুড়ে ইতিমধ্যেই ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।