গোপালগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতির বাড়ীতে মাদক বিক্রেতাদের হুমকি

0
390

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : “চলো যাই যুদ্ধ মাদকের বিরুদ্ধে” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মাদক নিয়ন্ত্রণে সরকার যখন কঠোর পদক্ষেপ নিচ্ছে দেশে যখন হাজার হাজার মাদক বিরোধী অভিযান চলছে ঠিক তেমনই সময় মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার কারনে সোমবার সকাল ১১টার দিকে গোপালগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি দৈনিক যুগান্তর ও জাগো নিউজের গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি এবং  দি ডেইলি বাংলা পোষ্টের ষ্টাফ রিপোর্টার, এস এম হুমায়ুন কবিরের নবীনবাগ বাড়ীতে একদল মাদক ব্যবসায়ী গিয়ে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। এ সময় হুমায়ুন কবির বাসায় না থাকলেও তার মাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীরা। পরে তারা সেখান থেকে বেরিয়ে শহরের পাবলিক হল মোড়ে সাংবাদিক এস এম হুমায়ুন কবিরকে খুজতে থাকে এবং অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে সেখান চলে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শী সুত্রে জানা যায়, চরসোনাকুড় গ্রামের প্রতিষ্ঠিত মাদক ব্যবসায়ী আসাদুজ্জামান বাবুলের ছেলে জনির নেতৃত্বে একদল চিহ্নিত একদল মাদক বিক্রেতা ও মাদকসেবী সকাল ১১টার দিকে সাংবাদিক এস এম হুমায়ুন কবীরের নবীনবাগের বাসায় যায়। এ সময় তারা হুমায়ুন কবীরকে না পেয়ে তার মাতাসহ বাড়ীর সকলকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে। তাদের হাতে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র ছিল বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়।

অপর দিকে শহরের পাবলিক হল মোড়ে ওই দলটি এসে হুমায়ুন কবীরকে খুজতে থাকে না পেয়ে গালিগালাজ করতে করতে মটর সাইকেল যোগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দিকে চলে যায়।

বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস সুত্রে জানা যায়, ওই মাদক বিক্রেতা ও মাদকসেবীরা ভিসির পাশের কক্ষের এক কর্মকর্তার রুমে গিয়ে সাংবাদিক হুমায়ুন কবিরকে মেরে ফেলবো, তার হাত কেটে নেব, তাকে দেখিয়ে দেব বলে গিয়ে চিৎকার চেচামেচি করতে থাকে।

এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে গোপালগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দ। প্রতিবাদ লিপিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সারা দেশে যখন সরকারের মাদক বিরোধী অভিযান চলছে ঠিক তেমনই সময় মাদক বিক্রেতা ও মাদকসেবী কর্তৃক সাংবাদিককে মেরে ফেলার হুমকির ঘটনাটি জাতির জন্য লজ্জা জনক জনক। নেতৃবৃন্দ দোষি ব্যাক্তিদের আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করার দাবী জানিয়েছেন প্রশাসনের প্রতি।