গবেষকদের প্রযুক্তি ব্যবহার করে দেশের স্বল্প সম্পদের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে : ইউজিসি চেয়ারম্যান

0
472

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা) প্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) চেয়ারম্যান প্রফেসর আবদুল মান্নান বলেছেন, “তথ্য প্রযুক্তি এবং ইলেকট্রনিক্সের অগ্রযাত্রার জন্য ইআইসিটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। ইআইসিটি সম্মেলনের ধারণাসমূহ আমাদের বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করা সম্ভব হলে এই কনফারেন্সটি সার্থকতা পাবে। তিনি আরো বলেন গবেষকদের প্রযুক্তি ব্যবহার করে দেশের স্বল্প সম্পদের সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। আর এক্ষেত্রে গবেষকদের কঠোর পরিশ্রম করতে হবে”। তিনি বৃহস্পতিবার খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুয়েট) তিন দিনব্যাপী ৩য় “ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন ইলেকট্রিক্যাল ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি (ইআইসিটি-২০১৭)” শীর্ষক আন্তর্জাতিক কনফারেন্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান পৃষ্ঠপোষক ছিলেন কুয়েটের ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর।

প্রফেসর ড. মুহাম্মদ আলমগীর বলেন, “তরুণ গবেষকদের জন্য এ ধরনের কনফারেন্স নতুন দিগন্তের সৃষ্টি করবে। পরিবেশ রক্ষা, চাহিদার সাথে তাল রেখে বিদ্যুৎ উৎপাদন, টেকসই উন্নয়ন ইত্যাদি ক্ষেত্রে গবেষকদের কাজ করতে হবে, তবেই দেশের উন্নয়ন সম্ভব। আগামী দিনের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য গবেষনার কোন বিকল্প নেই”।
ইইই অনুষদের আয়োজনে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্টুডেন্ট ওয়েলফেয়ার সেন্টারে সকাল ১০টায় কনফারেন্সটির আয়োজক কমিটির সভাপতি ও ইইই অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ আব্দুর রফিক এর সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন টেকনিক্যাল চেয়ার প্রফেসর ড. মহিউদ্দিন আহমাদ, আইইইই বাংলাদেশের ভাইস-প্রেসিডেন্ট প্রফেসর ড. শেলিয়া শাহনেওয়াজ এবং আয়োজক কমিটির সম্পাদক প্রফেসর ড. এ বি এম আওলাদ হোসেন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে কী-নোট সেশনে পেপার উপস্থাপন করেন জাপানের ফুকুই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. তাকায়ুউকি মাকিনো এবং ভারতের যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর সুবির কুমার সরকার। তিন দিনব্যাপী সম্মেলনে বিশ্বের ১১টি দেশ থেকে ৩৯৩টি গবেষণা পেপার থেকে বাছাইকৃত ১২৮টি টেকনিক্যাল পেপার মোট ৩৩টি টেকনিক্যাল সেশনে উপস্থাপন করা হবে এবং সেরা তিনটি পেপারকে পুরস্কৃত করা হবে। সম্মেলনে টেকনিক্যাল পেপার উপস্থাপন ছাড়াও সুন্দরবন ও মংলা পোর্ট পরিদর্শন এবং কনফারেন্স ডিনারের ব্যবস্থা থাকবে। সম্মেলনে দেশ-বিদেশী গবেষক, শিক্ষক, দেশের স্বনামধন্য প্রকৌশলী ও প্রযুক্তিবিদগণসহ অন্যান্যরা অংশগ্রহন করেন।