গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটির নাগরিক সংলাপ

0
26

খবর বিজ্ঞপ্তি:
গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটির নাগরিক সংলাপ বৃহস্পতিবার সকালে দৈনিক প্রবাহের অডিটরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি এড. কুদরৎ ই খুদার সভাপতিত্বে সাঃ সম্পাদক খালিদ হোসেনের পরিচালনায় সংলাপে বক্তৃতা করেন খুলনা উন্নয়ন ফোরামের চেয়ারম্যান শরীফ শফিকুল হামিদ চন্দন, আ’লীগ নেতা শ্যামল সিংহ রায়, জাসদ মহানগর সাঃ সম্পাদক মোঃ আরিফুজ্জামান মন্টু, জেলা কমিটির সাঃ সম্পাদক স ম রেজাউল করিম, বেলার বিভাগীয় সমন্বয়কারী মাহফুজুর রহমান মুকুল, ন্যাপের সাঃ সম্পাদক তপন কুমার রায়, সেবিকা শিলা রাণী দাস, সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেন, শেখ ফেরদৌসুর রহমান, মামুন রেজা, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন খালিশপুর থানা কমিটির সভাপতি ডাঃ সৈয়দ মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, সাঃ সম্পাদক খলিলুর রহমান সুমন, নারী নেত্রী সিলভী হারুন, রূপায়নের শামীমা শাহিন, সুমন আহমেদ, বৃহত্তর খুলনা উন্নয়ন সংগ্রাম সমন্বয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব আফজাল হোসেন রাজু, কামনা রানী প্রমূখ। বক্তারা বলেন, আঞ্চলিক সমতা ভিত্তিক বাজেট পেশ করতে হবে। এ জন্য করের আওতা বাড়াতে হবে। তবে তা জনগণের ওপর বোঝা না হয়ে পড়ে সে দিকে খেয়াল রাখতে হবে। ভ্যাটের বোঝা কমিয়ে কর প্রদানকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি করতে হবে। অন্যায়, দুর্নীতি আর অসমতার বিরুদ্ধে রাজনীতিবিদ ও নাগরিক নেতাদের আরো সোচ্চার হতে হবে। বাজেটের অব্যবহৃত অর্থের পরিমাণ প্রকাশ করতে হবে। কল্যাণকর রাষ্ট্র করতে হলে সংসদে রাজনীতিবিদদের অংশ গ্রহণ বাড়াতে হবে। কমাতে হবে ব্যব্সায়ীদের অংশ গ্রহণ। কিন্তু বর্তমানে এ দেশে ব্যবসায়ীরাই সংসদে সংখ্যা গরিষ্ঠ। এসব ব্যবসায়ীদের মধ্যে দেশ প্রেম খুবই কম। ফলে এদের দিয়ে দেশের জণগণের উপকার হবে না। বাজেট নিয়ে জেলা ভিত্তিক সমন্বয় করে বাজেট পেশ করতে হবে। বাজেট গণতান্ত্রয়ণের জন্য বাজেট বিকেন্দ্রীয়করণ, জনঅংশ গ্রহণ ও জেলা বাজেট পেশ করতে হবে। বাজেট বিষয়ক আইনী জটিলতা দূর করতে হবে। প্রাদেশিক সরকার ব্যবস্থা থাকলে বাজেট সুসমভাবে নির্ধারণ হতো বলে বক্তারা মনে করেন।