খুলনা হোমমেড ফুড জোন গ্রুপের গেট টুগেদার অনুষ্ঠিত

0
63

নিজস্ব প্রতিবেদক:

ঝাঁকঝমকপূর্ন ও আনন্দমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে খুলনা হোমমেড ফুড জোনের পক্ষ থেকে গেট টুগেদার অনুষ্ঠিত হয়েছে। গ্রুপের এ্যাডমি কারিশমা চৌধুরীর আয়োজনে শুক্রবার বিকাল ৫টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত নগরীর টপ ইন টাউন রেস্টুরেন্টে এ গেট টুগেদার অনুষ্ঠিত হয়।

শুরুতে কেককাটার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করেন খুলনা হোমমেড ফুড জোনের গ্রুপের এ্যাডমি কারিশমা চৌধুরী, বিশেষ অতিথি এস ওয়েডিং এর ওনার সালমা দিনা, মডেরেটর ও ফুড নিয়ে কাজ করা বিভিন্ন পেজের ওনারবৃন্দ। এরপর বাড়িতে তৈরী করা বিভিন্ন ধরনের খাবার পরিবেশন করা হয়। এর মধ্যে বিভিন্ন আইটেমের কেক, পিঠা, দইবড়া, বিরিয়ানি, চাইনিজ, রাজশাহীর গুড়, আচার, পায়েস, বোরহানী, পরটা, ভর্তাসহ বিভিন্ন আইটের খাবার। সুস্বাদু এসব খাবার খেয়ে প্রশংসা করেন আগত অতিথিবৃন্দ।

গ্রুপের এ্যাডমিন ও গেট টুগেদারের আয়োজক কারিশমা চৌধুরী বলেন, যারা ফুড নিয়ে কাজ করে তাদেরকে একটি প্লাট ফর্মে নিয়ে আসার জন্য এমন একটি আয়োজন। সেই সাথে সবার খাবারের গুনগত মান সবাই নিজে খেয়ে দেখে যেতে পারবে এবং উদ্যোক্তাদের সেল আরও বাড়বে। সেই সাথে সামনে আরও বড় পরিসরে সবাইকে নিয়ে সুন্দর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে সবাইকে পরিচয় করিয়ে দিবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

গ্রæপের মডেরেটর সাদিয়া ইসলাম বলেন, যারা বাড়িতে রান্না করা খাবার অনলাইনে সেল করেন তাদের পরিচয় করিয়ে দেওয়া এবং তাদের খাবারের আইটেম গুলো পরিচয় করিয়ে দিতে গ্রুপের পক্ষ থেকে এমন আয়োজন করা হয়েছে। এমন অনুষ্ঠানে সবাই অনেক আনন্দ করেছেন বলে জানান।

উদ্যোক্তা মিশুমনি বলেন, যারা বাড়ির তৈরী খাবার নিয়ে কাজ করেন তাদের জন্য অনুষ্ঠান অনুপ্রেরনা যোগাবে। এবং এমন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রেডাক্টের পরিচিত পাবে।

অনুষ্ঠানে আগত উদ্যোক্তারা বাড়িতে তৈরী খাবার নিয়ে এমন আয়োজনে গ্রুপকে ধন্যবাদ জানান এবং এমন আয়োজনের মাধ্যমে উদ্যোক্তাদের সেল বাড়বে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সেই সাথে এমন অনুষ্ঠান আরও বেশী বেশী করার আহবান জানান।

অনুষ্ঠানে হোমমেড ফুড জোনের পক্ষ থেকে আটজন সেরা রাধঁনীকে পুরস্কার প্রদান করা হয়। সেরা রাঁধুনি ফার্স্ট রানার আপ নাদিয়া নাতাশা। অন্যান্যরা হলেন, নুজহাত দিবা, সালমা বানু, ঝুমুর তানজিলা, নিগার মুক্তা, মিশু মনি, জুবায়দা, কাজী ফারজানা কাকন। এছাড়াও বেস্ট সেলার ৫ জনকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠান শেষে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহনকৃত উদ্যোক্তদারে র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে মোট ১৬ জনকে পুরস্কার প্রদান করা হয়।