খুলনা শিশু ফাউন্ডেশনের নির্বাচন: আ’লীগের শীর্ষ দু’নেতার মর্যাদার লড়াই

0
385

টাইমস প্রতিবেদক :
মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) খুলনা শিশু ফাউন্ডেশনের নির্বাহী কাউন্সিলের নির্বাচন। নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের শীর্ষ দুই নেতার নেতৃত্বে ২০ সদস্যে দুটি প্যানেল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছে। যার একটির নেতৃত্বে রয়েছেন খুলনা মহানগর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক,সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এবং অপর প্যানেলেরনেতৃত্ব দিচ্ছেন সদর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাড.সাইফুল ইসলাম। উভয় প্যানেলে বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সমর্থিত,চিকিৎসকসহ সমাজ কর্মীরা অর্šÍভূক্ত হয়েছেন। ২০ সদস্য পদের বিপরিতে দুই প্যানেলে ৪০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। নির্বাচনে দুটি প্যানেলের মধ্যে তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে সাধারণ ভোটাররা মনে করছেন। এদিকে অরাজনৈতিক হলেও শিশু ফাউন্ডেনের এই নির্বাচনে রাজনৈতিক রং লেগেছে। দলীয় রাজনীতিতে মতানৈক্যের কারণে এই নির্বাচনকে মর্যাদার লড়াই হিসেবে দেখা হচ্ছে। গোটা নগরীতে শিশু ফাউন্ডেনের নির্বাচন আলোচনার কেন্দ্রবৃন্দতে পরিনত হয়েছে। সকাল ৯টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত খুলনা জেলা ক্রীড়া ষ্টেডেয়ামে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। ২ হাজার ১৮৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিক প্রয়োগ করবেন।
খুলনা মহানগর আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান এমপি’র নেতৃত্বে প্রার্থীরা হলেন,ডা. বজলুর হক, ডা. কামরুল ইসলাম, ডা. মাহমুদ হাসান লেলিন,এম ডি এ বাবুল রানা, এ্যাড. সরদার রজব আলী, ফেরদউস আলম খান ফায়াজী, মুর্শিদা আক্তার রনি, কাউন্সিলর আলী আকবর টিপু, হালিমা ইসলাম, আলহাজ্ব মুনির আহমদ,শেখ মামুন আল হাসান রাজু, সৈয়দ হাফিজুর রহমান,মোস্তফা কামাল খোকন, আলহাজ্ব মফিজুল ইসলাম টুটুল,জোবায়ের আহমেদ জবা, চৌধুরী মো: রায়হান ফরিদ,আল জামাল ভুইয়া, খান সাইফুল ইসলাম, মোঃ মনিরুল ইসলাম মাসুম। এবং সদর থানা আওয়ামীলীগ সভাপতি সাইফুল ইসলামের নেতৃত্বাধীন শিশু স্বাস্থ ও সেবা পরিষদের প্রার্থীরা হলেন, অধ্যক্ষ শহিদুল হক মিন্টু, জামাল উদ্দিন বাচ্চু,মো: শফিকুল ইসলাম তুহিন, এ্যাড. কানিজ ফাতেমা আমিন, রফিকুর রহমান রিপন,মিনা আজিজুর রহমান,মো: আব্দুল গফ্ফার,এ্যাড.কেএম ইকবাল হোসেন,্এ্যাড.একে এম শাজাহান কচি,ফারুক আহম্মদ খান, তহিদুল ইসলাম ঝন্ট,ু জি.এম. রেজাউল ইসলাম, মোঃ ইউসুফ আলী, অচিন্ত কুমার ঘরামী, এ্যাড. শিকদার হাবিবুর রহমান,শাহামো: জাকিউর রহমান,অধ্যপক এস,এমমেহেদী বিল্লঅহ,খোকন রায় দিলিপ ও কাজী মাহামুদ আলী
প্রসঙ্গত : সর্বশেষ নির্বাচন ২০১৪ সালের ১১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হয়। সে সময় মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ৭শ’ ৮৫ জন।