খুলনা-যশোর মহাসড়ক পাঁচ ঘন্টার অবরোধ দু’ঘন্টায় প্রত্যাহার

0
479

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা) প্রতিনিধি:
শিরোমণি শিল্পাঞ্চালের বন্ধকৃত ব্যাক্তিমালিকানা জুট স্পিনার্স মিলের শ্রমিক-কর্মচারী এবং কর্মকর্তাদের সকল বকেয়া পাওনা পরিশোধ, উৎপাদন প্রক্রিয়া চালুর দাবীতে পূর্বঘোষিত কর্মসুচির অংশহিসাবে বৃহস্পতিবার খুলনা-যশোর মহাসড়কের শিরোমণি শিল্পাঞ্চাল এলাকায় পাঁচ ঘন্টার অবরোধ আ’লীগের নেতৃবৃন্দের আশ^াসে দুই পৌনে দুই ঘন্টা পর অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।
সকাল সাড়ে ৮টা থেকে মিলের সর্বস্থরের নারী-পুরুষ শ্রমিক-কর্মচারীসহ বিভিন্ন শ্রেনীর মানুষ শিরোমণি কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এসে জমায়েত হয়। ঠিক সকাল ৯টায় ব্যানার নিয়ে মিছিল সহকারে খুলনা যশোর মহাসড়কের শিরোমণি শিল্পাঞ্চালের বাজার সংলগ্নে মহাসড়কের উপর অবস্থান করে সমাবেশ করে। এ সময় পুলিশের অনুরোধে এইচএসসি পরীক্ষার্থীদের বহনকারী যানবাহন অররোধের আওতামুক্ত রাখে সকল গাড়ী বন্ধ করে দেয়। সকাল সাড়ে ১০ টায় খুলনা মহানগর আ’লীগের সভাপতি ও সির্টি কর্পোরেশনের মেয়র প্রার্থী আলহাজ্জ তালুকদার আব্দুল খালেক অবরোধস্থলে এসে শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে তিনি অবরোধকারী শ্রমিকদেও উদ্দেশ্যে বলেন, জুট স্পিনার্স চালু সহ তাদের বকেয়া পাওনার বিষয়ে দ্রত মালিক কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে সমস্যার সমাধানের আশ^াস দিয়ে অবরোধ প্রত্যাহার করে নেওয়ার অনুরোধ করলে নেতৃবৃন্দ তার উপর আস্তা রেখে সকাল পৌনে ১১টায় অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয়। এ সয়ম অবরোধস্থলে উপস্থিত হয় খুলনা মহানগর আ’লীগের সহ-সভাপতি বেগ লিয়াকত আলী, খানজাহান আলী থানা আ’লীগের সভাপতি শেখ আবিদ হোসেন, থানা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার স.ম রেজওয়ান আলী, ১নং আটরা গিলাতলা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ মনিরুল ইসলাম।

 

 

অবরোধ চলাকালে মিলের সিবিএ-ননসিবিএর সমন্বয়ে দাবী আদায় কমিটির আহবায়ক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে বক্তৃতা করেন, শ্রমিকলীগ নেতা আলহাজ্জ শেখ আনছার আলী, ৩৪ নং ওয়ার্ড আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক খ,ম লিয়াকত আলী, কমিউনিষ্ট পার্টির নেতা আব্দুস সাত্তার মোল্যা, ইউপি মেম্বর শেখ আব্দুস সালাম, প্লাটিনাম শ্রমিক নেতা মোঃ খলিলুর রহমান, দাবী আদায় কমিটির সদস্য সচিব সাহ মোঃ মনিরুল ইসলাম, শেখ শহিদুল ইসলাম, সিবিএ সাবেক নেতা শেখ রবিউল ইসলাম, শেখ আরিফুল ইসলাম, মোঃ মনিরুল ইসলাম, শেখ ইকবাল হোসেন, মোঃ হাবিবুর রহমান, শেখ কেসমত আলী, অধ্যাপক মোফাজ্জেল হোসেন, আব্দুস সালাম, আসাদুজ্জামান, মোঃ নুর ইসলাম, আবুল হাসেম গাজী, আল মামুন, কাগুজী ইকরাম, খোকন, মিজান, মামুন প্রমুখ। অবরোধ চলাকালে নেতৃবৃন্দ বলেন, আমাদেও কাছে যারা এসেছে সকলের অনুরোধ শুনেছি কিন্তু কেহ আমাদের সাথে দেওয়া কথা রাখিনি। আমরা বিশ^াস করি আ’লীগের মহানগর সভাপতি তালুকদার আব্দুল খালেকসহ নেতৃবৃন্দ মিল চালুর ব্যাপারে দ্রত সময়ে ব্যবস্থা গ্রহন করবেন। তারা যদি দাবী পুরণে ব্যার্থ হয় তা হলে সকল রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও সকল মিলের শ্রমিক নেতৃবৃন্দের সাথে আলোচনা করে চতুর্থ দফায় লাগাতর রাজপথ -রেলপথ অবরোধ সহ কঠোর কর্মসুচি ঘোষনা করা হবে।