খুলনা মহানগর বিএনপির বিপ্লব ও সংহতি দিবস পালন

0
574

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি:
বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, ১৯৭৫ এর ৭ নভেম্বর বিপ্লব ও সংহতি দিবস আমাদের অর্জিত স্বাধীনতার জন্য হুমকি সা¤্রাজ্যবাদ ও আধিপত্যবাদী শক্তিকে প্রতিহত করে জনমনে প্রকৃত স্বস্তি ফিরিয়ে এনেছিল। চরম হানাহানি, সহিংসতা, লুটপাট ও অনাচারের রাজনীতি বন্ধ করে মানুষের মুক্ত মত প্রকাশ ও রাজনীতি করার স্বাধীনতা ফিরিয়ে দিয়েছিল। উন্নয়ন ও উৎপাদনের রাজনীতি চালু করেছিলেন জিয়াউর রহমান। এ দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে জনপ্রিয়তম রাস্ট্রনায়ক ছিলেন জিয়াউর রহমান।
জাতীয় বিপ্লব ও সংহতি দিবসে খুলনা মহানগর বিএনপি আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার বেলা ১১টায় কে ডি ঘোষ রোডে দলীয় কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। আসাদুজ্জামান মুরাদের পরিচালনায় আলোচনায় অংশ নেন কেসিসির মেয়র মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, শেখ মোশারফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, শেখ খায়রুজ্জামান খোকা, সিরাজুল ইসলাম, রেহানা আক্তার, ফখরুল আলম, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, সিরাজুল হক নান্নু, মেহেদী হাসান দীপু, মহিবুজ্জামান কচি, শাহিনুল ইসলাম পাখী, শফিকুল আলম তুহিন, ইকবাল হোসেন খোকন, মুজিবর রহমান, মোঃ শাহজাহান, শেখ সাদী, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, মুর্শিদ কামাল, মাসুদ পারভেজ বাবু, কে এম হুমায়ুন কবির, একরামুল কবির মিল্টন, হাসানুর রশিদ মিরাজ, শামসুজ্জামান চঞ্চল, মুজিবর রহমান ফয়েজ, শরিফুল ইসলাম বাবু, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, হেলাল আহমেদ সুমন, নাজিরউদ্দিন আহমেদ নান্নু, হাফিজুর রহমান মনি, শেখ জামিরুল ইসলাম, আফসারউদ্দিন মাস্টার, বদরুল আনাম, শমসের আলী মিন্টু, মোঃ জামালউদ্দিন, মহিউদ্দিন টারজান, রবিউল ইসলাম রবি, এইচ এম আসলাম, নাসির খান, আতিয়ার রহমান পাটোয়ারী, বাচ্চু মীর, আব্দুল আলিম, কাজী নেহিবুল হাসান নেহিম, জি এম রফিকুল হাসান, সাইমুন ইসলাম রাজ্জাক, মোস্তফা কামাল, মাহবুবুল হক, মিজানুর রহমান খোকন, মিজানুর রহমান ডিকেন, লিটন খান, রোকেয়া ফারুক, ডাঃ ফারুক হোসেন, জাকারিয়া লিটন, মোহাম্মদ আলী, লিটু পাটোয়ারী প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে দোয়া ও মোনাজাত পরিচালনা করেন মাওলানা আব্দুল গফফার ও মাওলানা শফিকুল ইসলাম। #