খুলনা মহানগর বিএনপির প্রেস ব্রিফিং

0
402

বিজ্ঞপ্তি: বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর সভাপতি সাবেক এমপি নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, দেশ একটা সঙ্কটের মধ্যে রয়েছে। গণতন্ত্রের এই সঙ্কট থেকে জাতিকে মুক্তি দিতে গঠিত হয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বিএনপি যে কথাটি গত সাড়ে ৯ বছর বলেছে সেটি হচ্ছে একটি অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের কথা। জাতীয় সংলাপের কথা। গণতন্ত্রের সংকট থেকে দেশকে বেরিয়ে আনার কথা। জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করে সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার আহ্বান দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার। আমরা আশান্বিত জাতির সেই আশা পূরণ হতে যাচ্ছে। সেই জন্যে অর্থবহ সংলাপের কথা বিএনপি বলেছে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট বলেছে। আমরা এখনো আশান্বিত সংলাপকে মেনেই সংলাপের মধ্যদিয়ে সমাধান বেরিয়ে আসবে। আর তা যদি সমাধান না আসে তাহলে সংকট আরো ঘনিভূত হবে। সংকট বাড়বে, নিপীড়ন, অত্যাচার বাড়বে এবং অর্থবহ নির্বাচন না হলে আরো বেশি ক্ষতির সময় আমাদের জন্য অপেক্ষা করবে। তিনি বলেন, একদিকে প্রধানমন্ত্রী সংলাপে করছেন। বলছেন আপনাদের বিরুদ্ধে যে মামলা তার একটি তালিকা দেন, আমরা একটি তালিকা চেয়ে পাঠিয়েছি। একদিকে তালিকা চেয়ে পাঠানো আরেকদিকে প্রতিহিংসার রাজনীতি ? দেশ কে চালাচ্ছে প্রধানমন্ত্রী না অন্য কেউ এই প্রশ্ন আমাদের। যে দিন সংলাপ চলছিলো সেই সংলাপের রাতেই খুলনায় দুইটি গায়েবী মামলা। তাহলে কি সরকার আমাদের সাথে অভিয়ন করছেন ?
রোববার (৫ নভেম্বর) বেলা ১২ টায় কেডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে মহানগর বিএনপি আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।
পুলিশের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, বিএনপি একটি নিবন্ধিত রাজনৈতিক দল। এই দলের রাজনীতি করার সাংবিধানিক অধিকার রয়েছে। এই দল নিষিদ্ধ ঘোষিত কোন দল নয়। আপনারা কেন আমাদের রাজনীতি করতে দিবেন না। বাড়িতে ঘুমাতে দেবেন না, কেন অফিসে আসতে দেবেন না, কেন ধরে নিয়ে নিপীড়ন করবেন। সরকারকে বলতে চাই আইনশঙ্খলা বাহিনী কার আদেশবলে কাজ করছে। তারমানে কি সরকারের মধ্যে সরকার আছে ? যাদের ইঙ্গিতে এই কাজগুলো হচ্ছে। এটি একটি রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস। আমরা নির্বাচনের ময়দান থেকে যাবো না।

অন্যান্যের মধ্যে এসময় উপস্থিত ছিলেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, মীর কায়সেদ আলী, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, শাহজালাল বাবলু, রেহানা আক্তার, স ম আব্দুর রহমান, ফখরুল আলম, অধ্যাপক আরিফুজ্জামান অপু, শেখ আব্দুর রশিদ, আজিজুল হাসান দুলু, শেখ সাদী, ইকবাল হোসেন খোকন, মাসুদ পারভেজ বাবু, একরামুল হক হেলাল, শামসুজ্জামান চঞ্চল, নিয়াজ আহমেদ তুহিন, শফিকুল ইসলাম শাহিন, সরদার ইউনুস আলী, ইমতিয়াজ আলম বাবু, জিএম রফিকুল ইসলাম, আরিফুর রহমান, রোকেয়া ফারুক, বোরহান উদ্দিন সেতু, আনজিরা খাতুন, শাহনাজ পারভীন, মুন্নি জামান প্রমুখ।