খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের প্রতিবাদ বিবৃতি

0
404

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি : খুলনার স্থানীয় কিছু দৈনিক পত্রিকায় রবিবার প্রকাশিত “কমার্স কলেজে ছাত্রলীগের সশন্ত্র মহড়ায় জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি নগর বিএনপি’র” শিরোনামের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ। উল্লেখ্য যে গত ৬ জানুয়ারি আযম খান সরকারী কমার্স কলেজ ক্যাম্পাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে রেজিস্ট্রার্ড গ্রাজুয়েটস প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ মনেকরে এই নির্বাচন সম্পূর্ন অরাজনৈতিক ও দলীয় প্রভাব মুক্ত নির্বাচন। এখানে খুলনা মহানগর ছাত্ররীগ বা কমার্স ছাত্রলীগের কোন সংশ্লিষ্ঠতা নাই। কিন্তু খুলনা মহানগর বিএনপির রাজনৈতিক অপরিপক্কতা ও মূর্খতার পরিচয় দিয়ে মিথ্যা ও হীন মানসিকতা থেকে এবং ধারাবাহিক অজুহাতের অভিযোগ থেকে ছাত্রলীগের কে দোষারোপের অপচেষ্ঠা চালানো হয়েছে। খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ মনে করে বিএনপি যে কোন সুষ্ঠ ও অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন সমর্থন করে না তারা সর্বদা একটা বিশৃঙ্খলা বাধানোর অপপ্রচেষ্ঠা লিপ্ত থাকে। তারাই ধারাবাহিকতা থেকে গত ৬ জানুয়ারি কমার্স কলেজে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেটে রেজিস্ট্রার্ড গ্রাজুয়েটস প্রতিনিধি নির্বাচনে বর্তমান সরকার ও বর্তমান সরকারের অধীনে সুষ্ঠ নির্বাচন যে সম্ভাব হয় সেটাকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে একটি সাজানো নাটকের মত মিথ্যা ও গদবাধা সাজানো বিবৃতি দিয়ে ছাত্রলীগকে দোষারুপ করার হীন চেষ্টা চালানো হয়েছে। খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ আরও মনেকরে যেহেতু এই নির্বাচন খুলনা সদর আসনের মধ্যে অনুষ্ঠিত হচ্ছিলো, সামাজিক ও রাষ্ট্রীয় দাায়িত্ব বোধ থেকে খুলনা সদর আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য উক্ত নির্বাচন পরিদর্শেনে যান এবং অবাধ নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে তিনি প্রশাসনকে দিকনির্দেশনা দেন। কিন্তু খুলনা মহানগর বিএনপি সদর আসনের মাননীয় সংসদকে সর্বদা প্রতিপক্ষ মনে করে হীনমানসিকতা ও রাজনৈতিক দেউলিয়াপনা থেকে মাননীয় সংসদ সদস্যের নাম বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে। খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ বিএনপির নেতৃবৃন্দের প্রতি আহবান করে বলেন আপনারা মিথ্যা বানোয়াট ও গদবাধা বিবৃতির মধ্যথেকে বেরিয়ে আসুন এবং সুষ্ঠ মানসিকতা নিয়ে রাজনীতি করুন অযথা নিজেরা বিশৃঙ্খলা সৃষ্ঠি করে ছাত্রলীগের উপরে দোষ চাপাবেন না, খুলনা মহানগর ছাত্রলীগ আশা প্রকাশ করে বলেন এপর থেকে বিএনপির নেতৃবৃন্দের বোধদ্বয় ঘটবে।
বিবৃতিদাতারা হলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন ও সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল।