খুলনা গিলাতলায় সাত পয়েন্টে মাদক ব্যাবসা

0
352

ফুলবাড়ীগেট(খুলনা) প্রতিনিধি :
নগরীর খানজাহান আলী থানাধীন আটরা গিলাতলার ৫নং ওয়ার্ডে পাঁচ থেকে সাতটি স্পর্টে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকার মাদক বিকিকিনি চলছে। এলাকার একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় মাদক ব্যবসায়ী গাজী হাদিউজ্জামানের নেতৃত্বে ৮/১০ জন মাদক ব্যবসায়ী রমরমা ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এমন অভিযোগে প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে মার্চ পিটিশন প্রদান করেছেন এলাকাবাসী। মাদকের ছোবল থেকে রক্ষা পেতে খানজাহান আলী থানার মাধ্যমে খুলনা জেলা প্রশাসক,পুলিশ কমিশনার, ফুলতলা উপজেলা চেয়ারম্যান, ফুলতলা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা, আটরা ইউপি চেয়ারম্যান সহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন এলাকাবাসী। এদিকে মাদকের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ায় এলাকার কয়েক ব্যক্তির নামে ডাকে উড়ো চিঠির মাধ্যমে জীবন নাশের হুমকি প্রদান করায় খানজাহান আলী থানায় সাধারণ ডায়রী করেছেন ভুক্তভোগীরা।
শতার্র্ধীক ব্যাক্তির স্বাক্ষরিত মার্চ পিটিশনের অভিযোগে জানাগেছে, আটরা গিলাতলার ৫নং ওয়ার্ড এলাকার জেলে বাগান, গাজী শহিদুল্লাহ এর মিলের পিছনে, গাজী হাবিবের নার্সারী, করিমের বাশ বাগান, কালু গাজীর মেহেগুনি বাগান, নদীর চর সহ কয়েকটি স্থানে প্রতিদিন হাজার হাজার টাকার গাঁজা, হেরোইন, ফেন্সিডিল, ইয়াবা সহ বিভিন্ন ধরনের মাদক কেনাবেচা চলে। অভিযোগে উ্েল্লখ এলাকার মৃত গাজী আজিবর এর পুত্র মাদক ব্যবসায়ী গাজী হাদিউজ্জামানের সহযোগিতায় গাজী উজ্জল, গাজী মোছা, মাইলো, শেখ ইমান, সজিব, গাজী পারভেজ, গাজী শাকিল বিভিন্ন কৌশলে বিক্রি কওে আসছে দীর্ঘদিন যাবত। এলাকার একটি প্রভাবশালী মহলের ছত্রছায়ায় এই ব্যবসা চালিয়ে আসলেও অজ্ঞাত কারণে প্রশাসন নিরব ভুমিকা পালন করেছে। এলাকায় মাদক বন্ধ উঠতি বয়েসিদের মাদকের ছোবল থেকে রক্ষা করতে এলাকাবাসী প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে গত ২৪ নভেম্বার স্বারকলিপি প্রদান করার একদিনের মধ্যে এলাকার গাজী মাকুল উদ্দিন সহ কয়েকজেরন নামে পোষ্ট অফিসের মাধ্যমে দূর্বার সংঘ বেনাপোল, যশোর এই ঠিকানা হতে চিঠি প্রেরণ করা হয়েছে যাতে বলা হয়েছে আমরা এলাকায় না থাকতে পারলে তোদেরকেও কোথাও থাকতে দেওয়া হবে না। এ ব্যাপারে খানজাহান আলী থানায় ভুক্তভোগী গাজী মাকুল উদ্দিন ৫জন সাধারণ ডায়রী করেছেন যার নং ১০৮০ তাং ২৪/১১/১৭।