খুলনা ইউ ক্যাবলের মালিক হাফিজ সহোদরের নামে মামলা

0
510

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনা টাইমস:

খুলনার খালিশপুর থানায় ইউ ক্যাবলের মালিক এস এম শফি উদ্দিন হাফিজ (৫০) ও তার ভাই সহ ৪ জনের নামে আজ (২৩ নভেম্বর) বৃহস্পতিবার মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলায় তাদের বিরুদ্ধে নৌ বাহিনীতে দরপত্র জমা দিতে বাধা দেয়া, প্রতিবাদ করলে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করা এবং নগদ অর্থ ও সোনা লুট করা ছাড়াও প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করা হয়।

মামলার বাদী নগরীর দেবেন বাবু রোডের বাসিন্দা শেখ নাসির উদ্দিনের ছেলে শেখ আজগর আলী লাল (৩৭)। দীর্ঘ ২৩ বছর ধরে খালিশপুরে তিনিও ক্যাবল ব্যবসায় করেন।

মামলা অভিযোগে আজগর বলেন, বুধবার (২২ নভেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে খুলনা ১নং নেভী গেট এলাকায় ডিস লাইন সরবরাহের দরপত্র জমা দেয়ার নির্ধারিত দিন থাকায় তিনি তার ভাই শেখ আজিজ উদ্দিন সাজুকে নিয়ে দরপত্র জমা দিতে যান। এসময় মামলার আাসামী সোনাডাঙ্গা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা মৃত শেখ আনছার আলীর ছেলে শেখ গিয়াস উদ্দিন (৪০), তার ভাই এসএম শফি উদ্দিন হাফিজ (৩৭), মোল্লা মোস্তাফিজুর মিলন, হান্নান ও আজিজুল সহ অজ্ঞাত আরও ৩/৪জন তাদের গতি রোধ করে দরপত্র জমায় বাধা দেয়।

এনিয়ে প্রতিবাদ করলে আসামী মিলন মাজা থেকে চাপাতি বের করে হত্যার উদ্দেশ্যে সাজুকে কোপ দেয়। পিঠে কোপ লাগায় সে গুরুতরভাবে রক্তাক্ত জখম হয়। এসময় এক নম্বর আসামী গিয়াস ধারালো ছুরি দিয়ে আমার ভাইয়ের বুকে ও বাম হাতে পোচ দেয়। ঠেকাতে গেলে আমাকে জিআই পাইপ দিয়ে এলোপাথাড়িভাবে পেটাতে থাকে। এতে আমি শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফোলা জখমপ্রাপ্ত হই।

মারপিট এর এক পর্যায়ে অপর আসামী হান্নান সাজুর পড়নে ৩০ হাজার টাকা মূল্যমানের স্বর্ণের চেইন, পকেটে থাকা মানিব্যাগ (যার মধ্যে মোটরসাইকেল কাগজ, ক্রেডিট কার্ড ও নগদ টাকা ছিল) ও ৭৫ হাজার টাকা মূল্যমানের স্যামসাং এস৬এস মডেলের স্মার্টফোন ছিনিয়ে নেয়। এসময় তাদের ডাকচিৎকারে লেকজন ছুটে এলে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে ঘটনাস্থল ত্যাগ করে। এরপর গুরুতর অবস্থায় আহত ভাইকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।