খুলনায় স্কুলছাত্র রাজিন হত্যার মূল কিলার সাব্বির আটক

0
683

এম জে ফরাজী, নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনাটাইমস:
এলাকায় আধিপত্য বিস্তার ও মেয়েলী ঘটনাকে কেন্দ্র করে খুলনা পাবলিক কলেজের সপ্তম শ্রেণীর ছাত্র ফাহমিদ তানভীর রাজিনকে হত্যা করা হয়। এই হত্যার মূল কিলার সাব্বিরকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খুলনার রূপসা উপজেলার আইচগাতী এলাকার মামার বাড়ি থেকে সোমবার বিকালে তাকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি অনুযায়ী নগরীর বয়রা ইসলামিয়া কলেজ রোডের শ্মশান ঘাটের বাড়ি থেকে কাগজে মোড়ানো রক্তমাখা ছুরি উদ্ধার করা হয়। সাব্বির শ্মশান ঘাটস্থ জালাল হাওলাদারের ছেলে।
এই মামলায় গ্রেফতার হওয়া তিন সন্দেহভাজনের দেয়া জবানবন্দী অনুযায়ী সাব্বিরকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানিয়েছেন খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সরদার মোশাররফ হোসেন। আজ মঙ্গলবার সাব্বিরকে আদালতে প্রেরণ করা হবে বলেও জানান তিনি।
সোমবার আদালতে সানি, আলিফ ও রিজভীর দেয়া জবানবন্দির বরাত দিয়ে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোশাররফ হোসেন বলেন, মামলার এজাহারভূক্ত এক নম্বর আসামী ফাহিম ইসলাম একটি মেয়েকে উত্যক্ত করে আসছিলো। এর প্রতিবাদ করায় ফাহিম দেখে নেয়ার হুমকি দেয় রাজিনকে। এই নিয়ে এলাকায় তাদের মধ্যে দলাদলীর ঘটনাও ঘটে। শেষ অবধি পাবলিক কলেজের অনুষ্ঠানে ফাহিমের নির্দেশে সাব্বির ছুরিকাঘাত করে রাজিনকে হত্যা করে।
গত শনিবার রাত সোয়া ৯টায় খুলনা পাবলিক কলেজ ক্যাম্পাসে কনসার্ট চলাকালে ছুরিকাঘাতে হত্যা করা হয় ফাহমিদ তানভীর রাজিনকে। খুলনা পাবলিক কলেজের সপ্তম শ্রেণির ছাত্র ছিল রাজিন। এ ঘটনায় রাজিনের বাবা শেখ জাহাঙ্গীর আলম বাদী হয়ে খালিশপুর থানায় ছয়জনের নাম উলে¬খ এবং অজ্ঞাত ৮-১০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় পুলিশ শনিবার রাতেই নগরীর মুজগুন্নি আবাসিক এলাকার বাসিন্দা ও সেনা সদস্য আলমগীর হোসেনের ছেলে আসিফ প্রান্ত আলিফ (১৬), নগরীর বড় বয়রার আফজালের মোড় এলাকার জাকির হোসেন খানের ছেলে মো. জিসান খান ওরফে জিসান পারভেজ (১৬), বড় বয়রা এলাকার মো. আহাদ হোসেনের ছেলে তারিন হাসান ওরফে রিজভী (১৩), রায়েরমহল মুন্সিবাড়ীর চিনির ভাড়াটিয়া সাইদ ইসলামের ছেলে মো. সানি ইসলাম ওরফে আপন (১৩), বড় বয়রা সবুরের মোড় এলাকার লিয়াকত হোসেনের ছেলে রয়েলকে (১৪) গ্রেপ্তার করেছে। এ নিয়ে এ মামলায় গ্রেফতারকৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ছয়-এ।
#