খুলনায় সনাতন পদ্ধতিতে ডেলিভারী ও অপুষ্টি জনিত কারণে নবজাতকের মৃত্যুর হার বৃদ্ধি

0
484

বেল্লাল হোসেন সজলঃ
অদক্ষ দাই, সনাতন পদ্ধতিতে ডেলিভারী ও অপুষ্টি জনিত কারণে নবজাতকের মৃত্যুর হার বারে। খুলনায় বছরে প্রতি হাজারে ১৪ জন নবজাতক শিশুর মৃত্যু হয়, এ তথ্য গেল বছরের। নবজাতকের মৃত্যু তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ডুমরিয়া ও পাইকগাছা উপজেলা। ২০২৫ সালে খুলনায় প্রতি হাজারে নবজাতকের মৃত্যু ১২ শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে হবে।
নবজাতকের মৃত্যুর হার, কমানোর মাধ্যমে এসডিজি অর্জনের লক্ষে জাতীয় নবজাতক স্বাস্থ্য কর্মসূচি উপলক্ষে এক আলোচনা সভায় বক্তারা এ কথা বলেন। বুধবার সকালে সিভিল সার্জেনের কক্ষে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিভিল সার্জন কার্যালয়, খুলনা ও জেনারেল হাসপাতাল যৌথভাবে এ সভার আয়োজন করে।
সভায় বক্তারা বলেন, ২০১৬ সালে সারা দেশে ৫ বছর বয়সের নিচে ১ লাখ ৫ হাজার শিশু মারা যায়। তার মধ্যে ৬২ হাজার নবজাতক। ২০২২ সালের মধ্যে দেশে নবজাতকের মৃত্যু ১৮শতাংশের নিচে নামিয়ে আনতে হবে। সেই সাথে মাতৃ মৃত্যুর হার কমাতে হবে। আন্তরিকভাবে স্বাস্থ্য সেবা দেয়ায় গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে।
সিভিল সার্জন ডাঃ এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক আলোচনা পর্বের সভাপতিত্ব করেন। প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ডাঃ সুশান্ত কুমার রায়। আলোচনায় অংশ নেন জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ এস এম মাহাবুবুর রহমান ও শিশু বিশেষজ্ঞ ডাঃ মোঃ সারাফাত হোসেন।
আলোচনা সভার পূর্বে এক শোভাযাত্রা বের হয়।