খুলনায় লটারির নামে জুয়া বন্ধের আলোচনা আইনশৃঙ্খলা প্রতিরোধ কমিটির সভায়

0
351

তথ্যবিবরণী:
খুলনা ‘জেলা আইনশৃঙ্খলা’ এবং ‘সন্ত্রাস ও নাশকতা প্রতিরোধ’ কমিটির মাসিক সভা রবিবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আমিন উল আহসান এতে সভাপতিত্ব করেন। এসময় খুলনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ উপস্থিত ছিলেন।

সভায় জানানো হয় খুলনায় চলমান পাটকল শ্রমিকদের অসন্তোষ নিরসন দূর করার জন্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক প্রশাসনিক কার্যক্রম চলমান আছে এবং এ সংকটের আশু সমাধান হবে। এছাড়া সুষ্ঠু নগর পরিবহন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে মাহেন্দ্রা ও থ্রি-হুইলারে তিনজন যাত্রীর বেশি লোক না তোলার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ ব্যাপারে থ্রি-হুইলারের মালিক ও শ্রমিকদের নিয়ে সমন্বয় সভা করার জন্য বিআরটিএ কে নির্দেশনা দেয়া হয়। স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসায় প্রত্যাহিক সমাবেশে সকল শিক্ষার্থীদের অংশ গ্রহণের মাধ্যমে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের বিষয়টি তদারকি করার জন্য সংশ্লিষ্ট শিক্ষা কর্মকর্তাকে জোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়।

এছাড়া সভায় তেরখাদা উপজেলায় চলমান সহিংসতা নিরসনের জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে কঠোর অবস্থান গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয় এবং প্রয়োজনে ঐ এলাকায় র‌্যাবের টহল কার্যক্রম পরিচালনা করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। নগরী ও জেলার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং করে মেলার নামে লটারির নামে জুয়া বন্ধ করার বিষয়েও আলোচনা করা হয়।

সভায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, উপজেলা চেয়ারম্যান, কেএমপি, র‌্যাব ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাসহ কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ অংশগ্রহণ করেন।

সভায় আইনশৃঙ্খলা প্রতিবেদনে জানানো হয়, খুলনা মহানগরীর আটটি থানায় গত ডিসেম্বর/১৭ মাসে চুরি ৬টি, খুন ২টি, অস্ত্র আইনে ২টি, দ্রæত বিচারে ২টি, ধর্ষণ ৩টি, অপরহণ ১টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৯টি, নারী ও শিশু পাচার ২টি, মাদকদ্রব্য ১৬২টি এবং অন্যান্য ৪০টি সহ মোট ২১৮টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত নভেম্বর/১৭ মাসে এ সংখ্যা ছিল ২১৮টি।

জেলার নয়টি থানায় ডিসেম্বর/১৭ মাসে চুরি ৫টি, খুন ১টি, অস্ত্র আইনে ৪টি, ধর্ষণ ৩টি, নারী ও শিশু নির্যাতন ৫টি, নারী ও শিশু পাচার ১টি ও মাদকদ্রব্য ৪৮টি এবং অন্যান্য আইনে ৭২টি সহ মোট ১৩৯টি মামলা দায়ের হয়েছে। গত নভেম্বর /১৭ মাসে এ সংখ্যা ছিল ১৪১টি।