খুলনায় রাজিনের হত্যাকারীদের শাস্তির দাবী ইসলামী আন্দোলন নগর শাখার 

0
450
খুলনা পাবলিক কলেজ ক্যাম্পাসে গত শনিবার রাতে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান চলাকালে বখাটে সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে সপ্তম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্র ফাহমিদ তানভীর রাজিন হত্যাকান্ডে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে এ ঘটনাকে সামাজিক অবক্ষয় এবং তা প্রতিকারে সংশ্লিষ্ট মহলের ব্যর্থতায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ খুলনা মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দ।
আজ সোমবার এক বিবৃতিতে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ নগর নেতারা বলেন, সার্বিকভাবে নিরাপত্তা ব্যবস্থাপনায় ঘাটতি, কলেজ কর্তৃপক্ষের উদাসীনতা, আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনীর দায়িত্বে অবহেলায় মেধাবী একটি জীবনের অকাল বিদায় ঘটলো। রাজিনের বাবা-মাসহ আত্মীয় পরিজনদের আহাজারি প্রতিটি মানুষকে অশ্র“সিক্ত করেছে। তাদের যে অপূরণীয় ক্ষতি সাধিত হয়েছে তা মেটানোর সাধ্য কারো নেই। কলেজের অভ্যন্তরে শিক্ষার্থীদের মাঝে মত বিরোধকে কেন্দ্র করে অতীতেও বহিরাগত পেশীশক্তিধারীদের দাপট দেখা গেছে।  কলেজের ৩১ বছর পূর্তি ও পুনর্মিলনীকে কেন্দ্র করে সাবেক শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার উল্লেখযোগ্য সংখ্যক সদস্য ২৫জন পুলিশ, ঢাকা থেকে আগত এলিটফোর্স ছিল ২৫ জন, শৃঙ্খলা কমিটিতে ছিল ৪০জন আর প্রায় চার/পাঁচশ’ স্বেচ্ছাসেবক যখন সেখানে কর্তব্যরত, সে সময় এমন একটি মর্মান্তিক ঘটনা কিভাবে ঘটতে পারে, এটাই সাধারণ মানুষের জিজ্ঞাসা।
কোন রাজনৈতিক পরিচয়ের প্রভাবে কিংবা বয়সজনিত কারণ দেখিয়ে যেন এসব খুনীরা পার পেয়ে না যায় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার জন্য প্রশাসনের প্রতি আহবান জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন নগর সভাপতি ও কেসিসি মেয়র প্রার্থী মাওঃ মুজ্জাম্মিল হক  এবং নগর সহ-সভাপতি মাও: মোজাফ্ফার হোসাইন, শেখ মোঃ নাসির উদ্দিন, সেক্রেটারি মুফতী আমানুল্লাহ, জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা ইমরান হোসাইন, সাংগঠনিক সম্পাদক ও ৩১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী মো: গোলাম মোস্তফা সজিব মোল্লা, আবু গালিব, নগর প্রচার সম্পাদক ও ৬ নং ওয়ার্ড প্রার্থী মো:তরিকুল ইসলাম কাবির, মো: আব্দুর রশিদ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জি এম কিবরিয়া, মো: জসিম উদ্দিন, মো: রবিউল ইসলাম তুষার, মাও: আব্বাস আমিন, ডা: কে এম আল-আমিন এহসান,  মুফতি আব্দুর রহমান, মাওঃ সিরাজুল ইসলাম, আলহাজ্ব আবু তাহের, মুফতি রবিউল ইসলাম রাফে, এ্যাড: মো: কামাল হোসাইন, মো: হযরত আলী, গাজী মিজানুর রহমান প্রমুখ নেতৃবৃন্দ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি