খুলনায় মসজিদ-মাদ্রাসার নামে অনুদান সংগ্রহের ছলে ভ্রাম্যমান চোর সিন্ডিকেট

0
591

নিজস্ব প্রতিবেদক : খুলনা মহানগরী এলাকায় মসজিদ-মাদ্রাসার নামে বাড়ি বাড়ি প্রবেশ করে অনুদান সংগ্রহের ছলে গড়ে উঠেছে ভ্রাম্যমান চোর সিন্ডিকেট। নগরীর খালিশপুর থানাধীন বিভিন্ন এলাকায় কয়েকজন যুবক এই সিন্ডিকেটের সদস্য। নগর গোয়েন্দা পুলিশের অভিযানে এদের ৬ সদস্যকে আটক করা হয়েছে।
আটকরা হলো খালিশপুর থানাধীন গাবতলা এলাকার চুন্নু শেখ’র ছেলে সুমন শেখ (২০), আলমনগর এলাকার মোঃ ইউসুফ এর ছেলে মোঃ ইমন (১৯), একই এলাকার মোফাজ্জল’র ছেলে মোঃ শুকুর (২০), মুক্ষি-মাদানী জামে মসজিদের পাশে কবির শেখ এর ছেলে রনি শেখ (১৯), শিশু পার্ক রোড’র মোকছের শিকদার এর ছেলে মোঃ সাজ্জাদ শিকদার @ সৃষ্টি (২১) ও বাস্তহারা এলাকার আব্দুল কাদের’র ছেলে মোঃ শফিকুল ইসলাম (২১)।
কেএমপি’র উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিবি) বি এম নুরুজ্জামান বিপিএম জানান, ‘গত শুক্রবার গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে মোবাইল চুরির অভিযোগে আসামী সুমন শেখকে আটক করে। উক্ত গ্রেফতারের সংবাদ শুনে বয়রার আন্দিরঘাটের বাসিন্দা শেখ আব্দুস সালাম খুলনা ডিবি অফিসে আসেন এবং তার বাড়ী হতে গত ০৫/১১/২০১৮খ্রিঃ তারিখ মোবাইল চুরি হওয়ার ভিডিও ফুটেজ প্রদান করেন। উক্ত ভিডিও ফুটেজ পর্যালোচনায় দেখা যায়, আসামী মোঃ সুমন শেখ এবং তার সহযোগী একজন পাজামা, পাঞ্চামী এবং টুপি পরে উক্ত বাড়ীতে প্রবেশ করছে’।
তিনি আরও জানান, ‘আসামীকে উক্ত ভিডিও ফুটেজ এর বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানায়- সে এবং বাকি আসামীরা দীর্ঘদিন ধরে পাজামা, পাঞ্চামী এবং টুপি পরে মাদ্রাসা-মসজিদের নামে অনুদানের টাকা সংগ্রহের ছলে বিভিন্ন বাড়ীতে প্রবেশ করে। তাদের গ্রুপের অন্য কিছু সদস্য বেক-আপ এর জন্য বাইরে রাস্তায় অবস্থান করত। এরপর গৃহকর্তা মসজিদের অনুদানের টাকা আনার উদ্দেশ্যে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করলে উক্ত চোরেরা সুযোগ বুঝে মোবাইল, ল্যাপটপ বা দামি জিনিসপত্র চুরি করে খুব দ্রুত সটকে পড়ে’।
এ সংক্রান্তে ভুক্তভোগী শেখ আব্দুস সালাম বাদী হয়ে তাদের বিরুদ্ধে সোনাডাঙ্গা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং-৩০, তারিখÑ২৩/১১/২০১৮খ্রিঃ ধারা-৩৮০/৪১১ পেনাল কোড।