খুলনায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

0
511

আজিজুর রহমান :
খুলনায় বুধবার (১১ জুলাই) সকালে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্যদিয়ে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০১৮ পালিত হয়।
সকাল ১০টায় একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নিউ মার্কেট প্রাঙ্গণ হতে শুরু হয়ে বিভাগীয় জাদুঘরে এসে শেষ হয়। খুলনা বিভাগীয় পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তর এসকল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। বিভাগীয় জাদুঘর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মোহাম্মদ ফারুক হোসেন।
এ বছরের জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ছিল ‘পরিকল্পিত পরিবার, সুরক্ষিত মানবাধিকার’। এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে প্রধান অতিথি তাঁর বক্তব্যে বলেন, দেশ ভিশন ২০২১, ও ২০৪১ নিয়ে ক্রমাগত এগিয়ে চলছে। বাংলাদেশ আজ মধ্যমায়ের দেশে রূপান্তরিত হতে যাচ্ছে। এ অগ্রগতির পথে ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যা একটি বড় সমস্যা। জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে চলমান এ অগ্রগতি অব্যাহত রাখতে হবে। তা না হলে ক্ষুদ্র ভূখন্ডে এ বৃহৎ জনসংখ্যা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে। জনগোষ্ঠীর জন্য খাবার, শিক্ষা, চিকিৎসা, পরিবহন সেবা নিশ্চিত করা আগামীতে আরও কঠিন হবে। এ সমস্যা সমাধানে শিক্ষা, স্বাস্থ্য, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগসহ সবার সমন্বিত উদ্যোগ দরকার। সমন্বিত উদ্যোগ সফল হলে দেশের জনসংখ্যা জনসম্পদে রূপান্তরিত হবে।
অনুষ্ঠানে জানান, ২০১৭ সালের প্রতিবেদন অনুযায়ী খুলনার এক বছরের নিচে শিশুর ক্ষেত্রে শিশুমৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ২৫জন, পাঁচ বছরের নিচে শিশুর ক্ষেত্রে শিশুমৃত্যুর হার প্রতি হাজারে ২৮জন। মাতৃমৃত্যুর হার প্রতি লাখে ১৪৬ জন। তাবে মাতৃমৃত্যুর হার ৭০ শতাংশে নামিয়ে আনার জন্য কর্মসূচি অব্যাহত রয়েছে।
খুলনা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের পরিচালক মো. শরিফুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশীদ, বিভাগীয় পরিচালক স্বাস্থ্য ডা. মো: আব্দুল কাদির, ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান এবং খুলনা সিভিল সার্জন ডা. এ এস এম আব্দুর রাজ্জাক। স্বাগত বক্তৃতা করেন পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপপরিচালক গুরু প্রসাদ ঘোষ।
সভা শেষে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ে পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের নির্বাচিত শ্রেষ্ঠ কর্মী, সেবাকেন্দ্র, বেসরকারি সংস্থা, ইউনিয়ন ও উপজেলা পরিষদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ করা হয়।