খুলনায় পাঁচ লাখের অধিক শিশুকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে

0
391
????????????????????????????????????

তথ্য বিবরণী:
খুলনায় আগামী ১ হতে ৭ অক্টোবর জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহে পাঁচ লাখ ৪৩ হাজার ৭শ ৯২ শিশুকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ সুন্দরভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে খুলনা সিভিল সার্জন দপ্তর বুধবার সকালে নগরীর স্কুল হেলথ ক্লিনিক সম্মেলনকক্ষে একটি জেলা এ্যাডভোকেসি সভায় আয়োজন করে। সভায় সভাপতিত্ব করেন সিভিল সার্জন ডাঃ এএসএম আব্দুর রাজ্জাক।
এ্যাডভোকেসি সভায় জানানো হয়, আগামী ১ হতে ৭ অক্টোবরে খুলনায় সকল প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে একযোগে পাঁচ হতে ১৬ বছর বয়সী শিশুদের কৃমিনাশক (মেবেন্ডাজল ৫০০ মি.গ্রাম) ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। স্কুল কেন্দ্রে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বাইরের সমবয়সী শিশুদেরকেও কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। এছাড়া একই বয়সী পথশিশু, কর্মজীবী শিশু, বিদ্যালয় হতে ঝরে পড়া সকল শিশুকেও ঔষধ সেবনের আওতায় আনা হবে। কৃমিমুক্ত সুস্থ্য সবল জাতি গঠনই এই কর্মসূচির উদ্দেশ্য।
কৃমি প্রতিরোধ করতে হলে ছয় মাস পর পর কৃমিনাশক ঔষধ সেবন, খালি পায়ে চলা ফেরা না করে জুতো ব্যবহার করা, পায়খানার পর সাবান দিয়ে হাত ধোয়া, হাতের নখ ছোট রাখা, খাদ্যদ্রব্য ঢেকে রাখা, ফলমূল ধুয়ে খাওয়া এবং খাবার গ্রহণের পূর্বে দুই হাত সাবান দিয়ে ধোয়ার অভ্যাস করা প্রয়োজন। ২০০৮ সাল থেকে প্রতিবছর ছয় মাস অন্তর কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হয়। আগামী অক্টোবরে ২৩তম কর্মসূচির মাধ্যমে সারা দেশে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ সপ্তাহ পালন করা হবে।
এবারে খুলনা জেলার নয়টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভাসহ দুই হাজার একশত ৪৩টি সরকারি প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও অন্যান্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ মোট তিন লাখ ৯৪ হাজার ২২ শিশুকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এছাড়া খুলনা মহানগরীতে পাঁচশ ৯১টি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এক লাখ ৪৯ হাজার সাতশ ৭০ শিশুকে এ ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে। সব মিলিয়ে পাঁচ লাখ ৪৩ হাজার ৭শ ৯২ শিশুকে কৃমিনাশক ট্যাবলেট খাওয়ানো হবে।
সভায় খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার ম. জাভেদ ইকবাল, জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা খোন্দকার রুহুল আমীন, উপজেলা স্বাস্থ্য পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, মাধ্যমিক ও প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা, সমাজসেবাসহ বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন। স্বাগত জানান ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ আতিয়ার রহমান শেখ।