খুলনায় ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন : সাবেক ছাত্রনেতা-মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা

0
1118

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনাটাইমস:
খুলনায় নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে ছাত্রলীগের ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করা হয়েছে। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) শহীদ হাদিস পার্কে খুলনা জেলা, খুলনা মহানগর ও কুয়েট ছাত্রলীগের যৌথ আয়োজনে আলোচনা সভা, সাবেক ছাত্রনেতা ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা এবং সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বক্তৃতা করেন খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ হারুনুর রশিদ। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান। সভায় প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ সাইফুর রহমান সোহাগ। এছাড়াও বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হুসাইন।


বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ও খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি শেখ শাহাজালাল হোসেন সুজন এর সভাপতিত্বে এবং খুলনা মহানগর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান রাসেল, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইমরান হোসেন এবং কুয়েট ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এর পরিচালনায় আমন্ত্রিত অতিথির বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ, কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ডা তোফাজ্জল হোসেন চয়ন, সাইদুর রহমান সাইদ, এস এম আব্দুর রহিম তুহিন, সাবিক হাসান সুইম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক নূরে আলম আশিক, উপ বেসরকারি বিষয়ক সম্পাদক আসিফ ইকবাল অনিক, উপ পাঠাগার সম্পাদক আলী মুল হক, উপ গ্রন্থনা ও প্রকাশনা সম্পাদক সাগর হোসেন সোহাগ।
অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ পারভেজ হাওলাদার এবং কুয়েট ছাত্রলীগের সভাপতি আবুল হাসান শোভন। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন জেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ। আলোচনা সভা শেষে বর্তমান সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন মুলূল চিত্র তুলে ধরে বর্ণাঢ্য র‌্যালিটি অনুষ্ঠিত হয়।

সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান সাংবাদিক ত্রয়কে ( বাম থেকে খুলনা মহানগর শাখার সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক সুমন আহমেদ, দপ্তর সম্পাদক অভিজিত পাল ও দৌলতপুর দিবানৈশ কলেজ শাখার সাবেক সভাপতি নূর হাসান জনি) শুভেচ্ছা স্মারক প্রদান খুলনা মহানগর, জেলা ও কুয়েট শাখা ছাত্রলীগের, ৭০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে

 

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি শেখ হারুনুর রশিদ বলেন “বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক সকল আন্দোলন ও সংগ্রামের গর্বিত অংশীদার বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। বাঙ্গালী জাতীয়তাবাদ ও পবিত্র মাতৃভুমির প্রতি যখন কোন বাধা এসেছে তখনই বাংলাদেশ ছাত্রলীগ রাজপথে নেমে তার তীব্র আন্দোলন গড়ে তুলেছে। তিনি আরও বলেন আমি ষাটের দশকে ছাত্রলীগ করে এসেছি, তাই ছাত্রলীগের প্রতি আমার আমার তীব্র আবেগ কাজ করে”।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খুলনা ২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান মিজান বলেন“ উপমহাদেশে সবচেয়ে প্রাচীন সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ভাষা আন্দোলন, ৬৯ গণ অভ্যুথান , ৭১ মহান মুক্তিযুদ্ধ সহ দেশে ক্রান্তি লগ্নে বলিষ্ঠ ভুমিকা রখেছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। সুতারং ছাত্রলীগের গৌরব, ধরে রাখতে ছাত্রলীগের প্রতিটা নেতা কর্মীদের সজাগ থাকতে হবে”।

সভায় প্রধান বক্তা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ সাইফুর রহমান বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ একটি আদর্শিক ছাত্রসংগঠন, আমাদের রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস ও ঐতিহ্য। সেই ইতিহাস ও ঐতিহ্য ধরে রাখতে আমাদের ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতা কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করে যেতে হবে। তিনি আরও বলেন সামনে আমাদের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন , সেই নির্বাচনে আবার আমাদের প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ জননেত্রী শেখ হাসিনা কে জয়ী করার লক্ষ্যে নিরলস পরিশ্রম করেতে হবে”।

বিশেষ বক্তা হিসেবে অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হুসাইন বলেন, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর নিজস্ব হাতে গড়া সংগঠন, এবং একমাত্র জননেত্রী শেখ হাসিনার ভ্যানগার্ড। অতীতে দেশের যে কোন ক্রান্তি লক্ষ্যে আলোক বর্তিকা হিসেবে আর্বিভূত হয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বর্তমানেও বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ছাত্র সমাজের প্রথ প্রদর্শক হিসেবে কাজ করেছে।”