খুলনায় গ্রাম আদালত সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধি নিয়ে কর্মশালা

0
472

তথ্যবিবরণী:
গ্রাম আদালত সম্পর্কে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে গণমাধ্যমের ভূমিকা শীর্ষক দিনব্যাপী কর্মশালা আজ বৃহস্পতিবার সকালে খুলনা সার্কিট হাউজ সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। গ্রাম আদালতের মাধ্যমে গ্রামীণ স্থানীয় জনগণ বিশেষ করে নারী, দরিদ্র ও বিপদাপন্ন মানুষের আইনী সহায়তা পাওয়ার সুবিধা রয়েছে। গ্রাম আদালতের মাধ্যমে স্থানীয় পর্যায়ের বিরোধগুলো দ্রুততম সময়ে, স্বল্প খরচে ও স্বচ্ছতার সাথে নিষ্পত্তি করা হয়।
কর্মশালায় বক্তারা বলেন, উচ্চ আদালতে কয়েক লাখের বেশি মামলাজট রয়েছে। সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ ‘গ্রাম আদালত’ এই মামলাজট ছাড়াতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে। এই আদালতের মাধ্যমে জনসাধারণের সময় ও অর্থ সাশ্রয় হবে এবং জনগণ উপকৃত হবে। গ্রাম আদালতের ভূমিকা সম্পর্কে গণমাধ্যমগুলোতে আরও বেশি প্রচার জরুরী।
খুলনা জেলায় ছয়টি উপজেলায় ৪১টি ইউনিয়নে গ্রাম আদালত পরিচালিত হচ্ছে। এসব ইউনিয়নে জুলাই ২০১৭ থেকে মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত দুই হাজার সাতটি মামলা দায়ের হয়েছে। যার মধ্যে এক হাজার নয়শ আটটি মামলা নিষ্পত্তি হয়েছে। শতকরা হিসেবে মামলা নিষ্পত্তির হার ৯৮ ভাগ।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা জেলা প্রশাসক মো. আমিন উল আহসান। বিশেষ অতিথি ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক হোসেন আলী খোন্দকার, পুলিশ সুপারের প্রতিনিধি ওয়াসিম ফিরোজ এবং খুলনা প্রেসক্লাবের সভাপতি ফারুক আহমেদ। এতে সভাপতিত্ব করেন খুলনা স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক ইশরাত জাহান। পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টশন করেন ইউএনডিপি’র কমিউনিকেশন এন্ড আউটরিচ স্পেশালিস্ট অর্পণা ঘোষ। স্বাগত জানান ইউএনডিপি’র জেলা সমন্বয়ক মামুনুর রশিদ খান।
খুলনার প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক, ইউপি চেয়ারম্যান, উপকারভোগীসহ সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা কর্মশালায় অংশগ্রহণ করেন। খুলনা জেলা প্রশাসন এবং স্থানীয় সরকার বিভাগ বাংলাদেশে গ্রাম আদালত সক্রিয়করণ (২য় পর্যায়) প্রকল্পের সহযোগিতায় এ অনুষ্ঠান আয়োজন করে।