খুলনায় খানজাহান আলী দীঘি রক্ষায় ১০ জনের বিরুদ্ধে লিগ্যাল নোটিশ

0
396

খুলনা টাইমস প্রতিবেদক :
খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন মুজগুন্নী এলাকায় প্রায় ৭০০ বছরের পুরাতন খানজাহান আলী দীঘি সংরক্ষণে পদক্ষেপ গ্রহণের দাবীতে বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) সংশ্লিষ্ট কতকৃপক্ষসহ ১০ জরের বিরুদ্ধে লিগ্যাল নিাটিশ প্রদান করেছে। যাদের বরাবর লিগ্যাল নোটিশ প্রেরণ করা হয়েছে তারা হলেন সচিব-ভ‚মি মন্ত্রণালয়-বাংলাদেশ সচিবালয়-ঢাকা, সচিব-পরিবেশ ও বন মন্ত্রণারয-বাংলাদেশ সচিবালয়-ঢাকা, মেয়র- খুলনা সিটি কর্পোরেশন-খুলনা, মহা-পরিচালক-পরিবেশ অধিদপ্তর-আগারগাঁও-ঢাকা, চেয়ারম্যান-খুলনা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ-খুলনা, জেলা প্রশাসক খুলনা,পরিচালক-পরিবেশ অধিদপ্তর-খুলনা, মোঃ জাকির হোসেন মৃধা, পিতা-মৃত মোঃ তৈয়ব আলী মৃধা, রোড নং-৪৪/২, নর্থ জোন বি, খালিশপুর হাউজিং এস্টেট, খুলনা এবং শেখ মারুফ হোসেন, পিতা-মৃত শেখ রফি পেশকার, গ্রাম-মুজগুন্নী, যশোর রোড, খুলনা।
লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়েছে, খুলনা সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন ৯নং ওয়ার্ডে মুজগুন্নী-খালিশপুর এলাকায় মুজগুন্নী মৌজাস্থ সি এস ৪৪২(আর এস ২১৩০ ও ৫০৪৭) নং দাগে খানজাহান আলী দীঘি নামে একটি ্ঐতিহ্যবাহী দীঘি আছে। এলাকার পানি নিষ্কাশনের অন্যতম আধার হিসেবে এই দীঘিটি দীর্ঘদিন থেকে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছে। তাছাড়া সুপেয় পানির সংকট থাকায় এলাকার নি¤œবিত্ত পরিবার দৈনন্দিন গৃহস্থলী কাজে এই দীঘির পানি ব্যবহার করে আসছে।  বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ এবং জলাবদ্ধতা নিরসনে এই দীঘিটি গুরুত্বপূর্ণ ভ‚মিকা পালন করে থাকে।
গত ২০১৫ সাল থেকে কতিপয় স্বার্থান্বেষী ব্যক্তি এই দীঘিটি ভরাট করার একটি অপপ্রয়াস শুরু করলে এলাকার মানুষ ঐতিহ্যবাহী এই দীঘিটি বন্ধের বিরূদ্ধে ঐক্যমত গড়ে তোলেন। সেই সাথে তারা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে দীঘিটি যাতে বন্ধ না হয় তার পদক্ষেপের দাবিতে গণস্বাক্ষর সম্বলিত চিঠি প্রদাস করেন। এর ফলশ্রæতিতে পরিবেশ অধিদপ্তর অভিযুক্ত ব্যক্তিদের বিরূদ্ধে নিষেধাজ্ঞা নোটিশ প্রদান করলে সাময়িকভাবে ভরাটের কাজ বন্ধ হয়ে যায়।
সম্প্রতি সেই স্বার্থন্বেষী ব্যক্তিরা পুনরায় দীঘি ভরাটের উদ্যোগ গ্রহণ করলে বেলা বরাবর এলাবাসীর আবেদনের প্রেক্ষিতে বেলা ঐতিহ্যবাহী এই দীঘিটি সংরক্ষলে এই লিগ্যাল নোটিশটি প্রেরণ করে। বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) উক্ত লিগ্যাল নোটিশের মাধ্যমে সংশ্লিষ্টদের গৃহীত পদক্ষেপ আগামী ৭ দিনের মধ্যে বেলা বরাবর অবহিত করার অনুরোধ জানিয়েছে এবং সেই সংগে দীঘিটি অপরিবর্তিত রেখে তা সংরক্ষণের দাবী জানিয়েছে। #