খুলনায় এফআর জুট মিলে অগিকাণ্ডের ঘটনা তদন্তে দু’টি কমিটি : ৭৫ কোটি টাকা ক্ষতির দাবি মালিকপক্ষের

0
631

নিজস্ব প্রতিবেদক:
খুলনার খানজাহান আলী থানাধীন এফ আর জুট মিলে অগিকাণ্ডের একদিন পরও আগুন জ্বলতে দেখা গেছে। যদিও ফায়ার সার্ভিসের উপ-সহকারী পরিচালক ইকবাল বাহার বুলবুল জুট মিলের আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে দাবি করেছেন। এ ঘটনায় বিস্ময় প্রকাশ করেছেন ঢাকা থেকে আগত সার্ভে টিমের সদস্যরা। এদিকে দমকল বিভাগ এবং ব্যাংক কর্তৃপক্ষ পৃথক তদন্ত কমিটি গঠন করেছেন।
সোনালী ব্যাংক খুলনা কর্পোরেট শাখার ডিজিএম গোপাল চদ্র গোলদার জানান, জুট মিলে আগুন লাগা এবং ক্ষতিপূরণ তদন্তে এসজিএম শহিদুল আলমকে প্রধান করে ৬ সদস্য একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এফ আর জুট মিলস এর গুদামে ৩ লাখ ৬৫ হাজার ৫০১ মন পাট এবং ১৮২৬ মেট্রিক টন পাট পন্য ছিল, যার বাজার মূল্য ৮৮ কোটি ৫৮ লাখ টাকা এবং ব্যাংকের বিনিয়োগ ছিল ৮০ কোটি টাকা।

 

খানজাহান আলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা লিয়াকত আলী জানান, বুধবার থানায় এফ আর জুট মিলের জেনারেল ম্যানেজার তাজুল ইসলাম বাদী হয়ে একটি জিডি করেছেন। জিডিতে মোট ৮টি গুদামে অগিকান্ডে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান ৭৫ কোটি টাকা দাবি করা হয়েছে। জিডিতে আগুনের সূত্রপাত শর্ট সার্কিট বলে উল্লে­খ করা হয়েছে এবং ৮টি গুদামের নাম উল্লেখ করে সব পাট পুড়ে বিনষ্ট হয়েছে বলে দবি করা হয়।

 

গ্রীণ ডেল্টা ইনসুরেন্স কোম্পানীর নির্বাহী পরিচালক শাহ জাহাঙ্গীর আবেদ জানান, একই প্রতিষ্ঠানের দুই বছর আগে একদফা আগিকান্ডে ঘটেছিল। সেই সময় প্রতিষ্ঠানের পক্ষ হতে তাদের কাছে ১৬ কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ দাবি করা হয়েছিল। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, একই প্রতিষ্ঠান বার বার আগুন লাগার ঘটনাটি রহস্যজনক। তিনি আরো জানান, ইতিপূর্বের অগ্নিকাণ্ডে ১৬ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করলেও পরে তারা ৮ কোটিতে ক্ষতিপূরণ নিতে সম্মতি জানায় রহস্যজনক ভাবে। যদি এখনও সেই অগিকাণ্ডের ক্ষতিপূরণ নিস্পত্তি হয়নি। এফ আর জুট মিল সব মিলে তাদের ১৭০ কোটি টাকার বীমা করা রয়েছে।

 

গ্রীন ডেল্টা ইনসুরেন্স কোম্পনীর ঢাকা থেকে আগত অপর এক নির্বাহী পরিচালক কবির আহমেদ চৌধুরী জানান, মঙ্গলবার তাদের বলা হয়েছিল ৪টি গুদামে আগুন লেগেছে, বুধবার দেখানো হচ্ছে মোট ৮টি গুদাম পুড়ে ভস্মিভূত হয়ে গেছে। তিনি ২৪ ঘটা পরও আগুন জ্বলতে দেখে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তিনি আরও জানান, এফ আর জুট মিলের বীমার ৭০% গ্রীনডল্টা, ১০% প্রগতি, ১০% ইষ্টান এবং ১০ পাইওনিয়ার ইন্সুরেন্সে বীমা করা। ঢাকা থেকে এশিয়ান সার্ভে, আললাটা সার্ভে ও জনতা সার্ভের তিনজন প্রতিনিধি এসেছেন বলে জানান তিনি।
এ ব্যাপারে এফ আর জুট মিলের জেনারেল ম্যানেজার মোঃ তাজুল ইসলামের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি কথা বলতে রাজি হননি।