খুলনায় আন্তর্জাতিক নারী দিবস পালিত

0
699

সাইমুম মোর্শেদ:
‘সময় এখন নারীর উন্নয়নে তারা, বদলে যাচ্ছে গ্রাম-শহরে কর্ম-জীবন ধারা’। প্রতিপাদ্য নিয়ে খুলনায় আজ নানা আয়োজনে পালিত হয় আন্তর্জাতিক নারী দিবস-২০১৮। খুলনা জেলা প্রশাসন, জেলা মহিলা বিষয়ক দপ্তর, সরকারি-বেসরকারি দপ্তর, সামাজিক-সংস্কৃতিক সংস্থা ও বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী মহিলা সংগঠন যৌথভাবে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। কর্মসূচির মধ্যে ছিল র‌্যালি, আলোচনা সভা ও পাঁচ দিনব্যাপী নারী উন্নয়ন মেলার উদ্বোধন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ উপলক্ষে সকাল ১০টায় খুলনা কালেক্টরেট প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তৃতায় সংসদ সদস্য বলেন, বর্তমান সরকার নারীর ক্ষমতায়নে সফল হয়েছে। নারীদের আরো উন্নয়নে সম্মিলিতভাবে এগিয়ে আসতে হবে। নারীকে পুরুষের পাশাপাশি সামাজিক ও অর্থনৈতিকসহ প্রতিটি কাজে সম্পৃক্ত করতে হবে। সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণের ফলে নারীরা সর্বক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। কর্মক্ষেত্রে নারীরা মেধা ও যোগ্যতায় অত্যন্ত দক্ষতার সাথে কাজ করছে। তৃণমূল পর্যšত নারীদের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে সরকার। তিনি বলেন, নারীরা আজ ঘরে বসে নেই। শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিচার বিভাগ, পুলিশ, প্রশাসন, ও সর্শশ্রবাহিনীসহ সকল পেশাতেই আজ নারীর অবার্ধ পদচারণা। পুরুষের চেয়ে নারীরা সকল কাজে সফল।

এতে খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ আমিন উল আহসান সভাপতিত্ব করেন। বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তরের আঞ্চলিক পরিচালক আফরোজা খান মিতা এবং নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি অ্যাড. অলোকা নন্দা দাস। স্বাগত বক্তৃতা করেন জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা নার্গিস ফাতেমা জামিন। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন কেয়ারের প্রতিনিধি সাজেদা ইয়াছমিন। এতে সরকারি কর্মকর্তা, এনজিও প্রতিনিধি, নারী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রীরা অংশগ্রহণ করেন।

এর আগে তিনি পাঁচ দিনব্যাপী নারী উন্নয়ন মেলা উদ্বোধন করেন।

সকাল সাড়ে আটটায় শহীদ হাদিস পার্ক থেকে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। সংসদ সদস্য মুহাম্মদ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করেন।

দিবসটি উপলক্ষে এছাড়াও কালেক্টরেট চত্ত্বরে আজ বিকেলে মহিলাদের ক্রীড়া অনুষ্ঠান এবং সন্ধ্যা সাতটায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন ও আঁধার ভাঙ্গার শপথ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।