খুলনায় আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলা শুরু

0
608

তথ্যবিবরণী:
ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প উদ্যোক্তাদের উৎপাদিত পণ্যের প্রচার, প্রসার, বিক্রয় এবং ক্রেতা-বিক্রেতাদের সংযোগ স্থাপনের লক্ষে সাত দিনব্যাপী খুলনা আঞ্চলিক এসএমই পণ্য মেলা-২০১৮ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠান বুধকার বিকেলে খুলনা সার্কিট হাউজ হেলিপ্যাড প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ আমিন উল আহসান এতে সভাপতিত্ব করেন।
সভাপতি তাঁর বক্তৃতায় বলেন, এসএমই পণ্য মেলা আমাদের দেশীয় পণ্যকে সবার কাছে পরিচিত করার একটি মঞ্চ। এই মেলা উদ্যোক্তাদের স্বাবলম্বী করার পাশাপাশি অন্য দশজন মানুষের কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করবে। একজন ছোট উদ্যোক্তা থেকেই বড় ব্যবসায়ী হওয়া সম্ভব। তিনি বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশে একশটি অর্থনৈতিক অঞ্চল গড়ে তোলা হবে। এজন্য দেশীয় পণ্য ব্যবহার বাড়াতে এবং বিদেশী পণ্য বর্জন করতে হবে। ২০৪১ সালের মধ্যে দেশকে উন্নত সমৃদ্ধশালী দেশে পরিণত করতে আমরা স্বপ্ন দেখছি। অধিক পরিমানে দেশীয় পণ্য রপ্তানির মাধ্যমে জাতীয় অর্থনীতিকে স্বনির্ভর করতে তিনি এসএমই উদ্যোক্তাদের প্রতি আহবান জানান।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতা করেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার মোঃ মাহবুব হাকিম, খুলনা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ হাবিবুর রহমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম সমীর কুমার, খুলনা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি’র সহ সভাপতি মোস্তফা জিসান ভূট্ট, নাসিবের সভাপতি মোঃ ইফতেখার আলী বাবু এবং এসএমই ফাউন্ডেশনের সহকারী জেনারেল ম্যানেজার আবু মঞ্জুর সাঈফ। স্বাগত বক্তৃতা করেন বিসিকের উপ-মহাব্যবস্থাপক শাহ নেওয়াজ।
মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত চলবে। খুলনা ও বরিশাল বিভাগের ৫০টি এসএমই প্রতিষ্ঠান তাদের উৎপাদিত পণ্য নিয়ে মেলায় অংশগ্রহণ করে। মেলায় পাটজাত পণ্য, হ্যান্ডিক্রাফটস, কৃষি প্রক্রিয়াজাত পণ্য, পোষাক, ডিজাইন ও ফ্যাশানওয়ার, গৃহস্থালী পণ্যসহ অন্যান্য স্বদেশী পণ্য নিয়ে স্টল সাজিয়েছেন ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোক্তারা।

এর আগে জেলা প্রশাসকের নেতৃত্বে শহীদ হাদিস পার্ক থেকে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হয়ে বিভিন্ন সড়ক প্রদিক্ষণ করে সার্কিট হাউজ হেলিপ্যাড প্রাঙ্গণে এসে শেষ হয়। র‌্যালিতে সরকারি কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশ গ্রহণ করেন। খুলনা জেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় ও এসএমই ফাউন্ডেশন এ মেলার আয়োজন করে। #