খুলনায় অস্ত্র ও গুলিসহ চরমপন্থী লাল্টু বাহিনীর প্রধান গ্রেফতার

0
1007
dav

নিজস্ব প্রতিবেদক : খুলনা জেলা গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) এর অভিযানে পূর্ববাংলা কমিউনিষ্ট পার্টির আঞ্চলিক লাল্টু বাহিনীর প্রধান মোঃ জহিরুল ইসলাম @ লাল্টু গাজী (৩৩) কে গ্রেফতার করা হয়েছে। এসময় তার কাছ থেকে একটি অত্যাধুনিক পিস্তল, এক রাউন্ড ৭.৬৫ পিস্তলের কার্তুজ জব্দ করা হয়।
জেলা গোয়েন্দা পুলিশের অফিসার ইনচার্জ তোফায়েল আহমেদ জানান, তার নেতৃত্বে রূপসা থানা এলাকায় অবৈধ অস্ত্র ও মাদক উদ্ধারসহ বিবিধ উদ্ধার অভিযান পরিচালনাকালে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রূপসা থানাধীন বাগমারা সাকিনস্থ পূর্ব রূপসা বাসষ্ট্যান্ড সংলগ্ন বাস মালিক সমিতির অফিসের সামনে থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়।
তিনি আরও জানান, তার বিরুদ্ধে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে ৭/৮ টি মামলায় গ্রেফতারী পরোয়ানা থাকায় সে আত্ম গোপনে থেকে খুলনা, বাগেরহাট, গোপালগঞ্জ তথা দক্ষিন বঙ্গের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান করে দলীয় কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। এছাড়া তার একটি নিজস্ব বাহিনী গড়ে তুলে ভাড়াটিয়া হিসেবে খুন, ডাকাতি ও সুন্দরবন এলাকায় বনদস্যু বাহিনীর সহায়তায় অপরাধমূলক কর্মকান্ত পরিচালনা করে আসছে। তার বিরুদ্ধে খুলনার ফুলতলা, খানজাহান আলী, খুলনা সদর থানা, আড়ংঘাটা থানায় এবং গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী থানায় হত্যা মামলা রয়েছে। সে ফুলতলা উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ আকরাম হোসেনকে বোমা মেরে হত্যার প্রচেষ্টা চালায়। এ সংক্রান্তে তার বিরুদ্ধে খানজাহান আলী থানায় বিষ্ফোরক আইনে মামলা রয়েছে। উক্ত আসামি খুলনা মহানগরীর সিটিএসবি এর তালিকাভুক্ত অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী ও পূর্ব বাংলার কমিউনিস্ট পার্টির আঞ্চলিক নেতা।
গোয়েন্দা তথ্যের ভিতিত্তে আরও জানা যায়, সে একজন ভাড়াটিয়া খুনি। সে বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে মোটা অংকের অর্থের বিনিময়ে ভাড়াটিয়া হিসেবে খুন করে থাকে। সে তার কর্মকান্ড পরিচালনার সময় বিভিন্ন স্থানে বিভিন্ন নামে পরিচিত মর্মে জানা যায়। সে বিভিন্ন স্থানে অবস্থান কালে তার পরিচয় গোপন রাখার জন্য ছদ্মনাম ব্যবহার করে। যেমনঃ মামুন ওরফে আসাদ ওরফে শফিক ওরফে শফিকুল ্ওরফে আসাদ ওরফে জহির ওরফে জহিরুল গাজী ওরফে লালটু গাজী।
এ বিষয়ে জেলা গোয়েন্দা শাখা খুলনার এসআই সনজীব ঘোষ বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে রূপসা থানায় অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করেন। উক্ত আসামিকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে তার অন্যান্য সহযোগীদের গ্রেফতারসহ তাদের দখলে থানা অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রয়েছে।