খুলনাসহ সারাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিকদের কর্মসূচি স্থগিত

0
922

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশন (বিজেএমসি) এর চেয়ারম্যানের সাথে পাটকল শ্রমিক নেতাদের বৈঠকে শ্রমিকদের দাবির বিষয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা হয়েছে। আগামী ২৮ মার্চের মধ্যে শ্রমিকদের মজুরি কমিশন বাস্তবায়নের বিষয়ে আশ্বাস প্রদান করায় শ্রমিক নেতারা কর্মসূচি স্থগিত করেছে। বিষয়টি সোমবার রাত সোয়া ১০টার দিকে দৈনিক খুলনা টাইমসকে নিশ্চিত করেছেন প্লাটিনাম জুট মিলের নবনির্বাচিত সিবিএ সভাপতি শাহানা শারমিন।
তিনি জানান, বিজেএমসির চেয়ারম্যানের সাথে ফলপ্রসূ আলোচনার প্রেক্ষিতে শ্রমিক নেতারা বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে বিজেএমসির চেয়ারম্যানের সাথে শ্রমিক নেতাদের দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে বাকী দাবিগুলোরে বিষয়ে আলোচনা করা হবে বলে তিনি জানিয়েছেন।
আলীম জুট মিলের সিবিএ সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম লিটু জানান, ২৮ মার্চ পর্যন্ত বকেয়া মজুরি পরিশোধ ও মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ৯ দফা দাবিতে খুলনাসহ সারাদেশের রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলে আজ মঙ্গলবার ভোর ৬টা থেকে ৪৮ ঘণ্টা ধর্মঘটসহ সকল কর্মসূচি স্থগিত থাকছে। এই সময়ে মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন না হলে ২৯ মার্চ কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।
পাটকল শ্রমিক নেতারা জানান, তাদের দাবির মধ্যে রয়েছে নিয়মিত সাপ্তাহিক মজুরি ও বেতন প্রদান, সরকার ঘোষিত জাতীয় মজুরি ও উৎপাদনশীলতা কমিশন-২০১৫ বাস্তবায়ন, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক কর্মচারীদের পিএফ-গ্রাচ্যুইটি ও মৃত শ্রমিকদের বীমার বকেয়া প্রদান, টার্মিনেশন ও বরখাস্ত শ্রমিকদের কাজে পুনর্বহাল, সেটআপ অনুযায়ী শ্রমিক-কর্মচারীদের নিয়োগ ও স্থায়ী করা, পাট মৌসুমে পাট কেনার জন্য প্রয়োজনীয় অর্থ বরাদ্দ, উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে মিলগুলোকে পর্যায়ক্রমে বিএমআরই করা প্রভৃতি। বাংলাদেশ পাটকল শ্রমিক লীগ এবং রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল সিবিএ-নন সিবিএ ঐক্য পরিষদ যৌথভাবে এ ধর্মঘট ডেকেছিল।
তারা জানান, খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, খালিশপুর, দৌলতপুর, স্টার, আলিম, ইস্টার্ন এবং যশোরের কার্পেটিং ও জেজেআই জুট মিলে বর্তমানে ১৩ হাজার ২৭১ জন শ্রমিক কর্মরত রয়েছে। ৬/৭ সপ্তাহের মজুরি বকেয়া থাকায় শ্রমিকরা পরিবারের সদস্যদের নিয়ে অর্ধহারে-অনাহারে দিন কাটাচ্ছে।