খুমেকে বিদ্যমান ছয় সমস্যা নিরসনে মেয়রের নিকট প্রস্তাবনা উত্থাপন

0
475

টাইমস প্রতিবেদক:
দালাল, অপ্রতুল যন্ত্রাপাতি ও কতিপয় কর্মচারীর দৌরাত্মসহ নানাবিধ সমস্যায় জর্জরিত খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতাল। এরমধ্যে বিদ্যমান ছয়টি সমস্যা এবং তার সম্ভাব্য সমাধানের জন্য এক প্রস্তাবনা উত্থাপন করা হয়েছে। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেকের নিকট প্রস্তাবনাটি পেশ করেছেন হাসপাতালটির পরিচালক ডা: মুন্সী মো: রেজা সেকেন্দার। তিনি প্রস্তাবে মেয়রকে অবগতির পাশাপাশি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ করেছেন। ইতোমধ্যে মেয়রের নির্দেশে প্রস্তবনা যথাযর্থতা যাচাই শুরু হয়েছে।
এরমধ্যে প্রথম ও প্রধান সমস্যা হিসেবে চিঠিতে উল্লেখ রয়েছে ‘দালালের সমস্যা’। দীর্ঘদিনের এই সমস্যাটি নিরসনে তিনজন পুলিশ মোতায়নের অনুরোধ করা হয়েছে।
দ্বিতীয় সমস্যাটি বলা হয়েছে ‘হাতপাতালের যন্ত্রপাতি দ্রুত নষ্ট হওয়া’। এটা সমাধানে কতিপয় কর্মচারী দৌরাত্ম্য বন্ধ ও যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের প্রস্তাব করা হয়েছে।
তৃতীয় সমস্যাটি হচ্ছে ক্লিনার ও ক্লিনিং বিষয়ক। পরিস্কার-পরিছন্নতার এই কাজে শিক্ষিত লোকবল নিয়োগ পাওয়ায় রীতিমত বিপাকে পড়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। তাদের দিয়ে অতি প্রয়োজনীয় কাজটি সম্পন্ন করা যাচ্ছে না। এ প্রসঙ্গে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার কথা বলা হয়েছে প্রস্তবনায়।
‘বাগানের সৌন্দর্য হ্রাস’ সমস্যাটিকে চতুর্থ সমস্যা হিসেবে দেখানো হয়েছে। এবং এর সমাধানে মেয়রের উদ্যোগে সৌন্দর্য বর্ধনের কাজ হাতে নেয়ার অণুরোধ করা হয়েছে।
‘অপ্রতুল যন্ত্রপাতি’ পঞ্চম সমস্যা হিসেবে বলা হয়েছে প্রস্তবনায়। এটি নিরসনে কেন্দ্রীয় ঔষধাগার হতে দ্রুত যন্ত্রপাতি সরবরাহের নিমিত্তে সংশ্লিষ্ট লাইন ডাইরেক্টরদের সাথে টেলিফোনে যোগাযোগ করার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া বিশুদ্ধ পানির সরবরাহের সমস্যা এবং তার সমাধানে ২৫টি উন্নতমানের পানির ফিল্টার স্থাপনের ব্যবস্থা নেয়ার প্রস্তবনা রয়েছে।
খুলনা মেডিকেল কলেজ হাতপাতালের পরিচালক ডা. মুন্সী মো: রেজা সেকেন্দার খুলনাটাইমসকে বলেন, আমরা ইতোমধ্যে মেয়র মহোদয়কে পত্রের মাধ্যমে প্রস্তাব সম্পর্কে অবগত করেছি। তিনি তাৎক্ষণিক নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডিএ বাবুল রানাকে ঘটনার সত্যতা যাচাইয়ের কাজ সোর্পদ করেছেন। খোঁজ-খবর নেয়ার পর পরবর্তীতে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।
উল্লেখ্য, ২৪ নভেম্বর খুমেকহা/শা-১/২০২০/৪৪৬০ (৮) নং স্মারকে মেয়রের নিকট পাঠানো প্রস্তাবনার পত্রটির অনুলিপি বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য), খুলনা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ, উপাধ্যক্ষ, হাসপাতালের উপ-পরিচালক ও সহকারী পরিচালকের সদয় অবগতির জন্য পাঠানো হয়েছে।