খুবি‘র হলে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ‘জঙ্গিবাদ বিনাশ করি, সুস্থ সমাজ গড়ি’

0
636

বিজ্ঞপ্তি: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজিতা হলে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ‘জঙ্গিবাদ বিনাশ করি, সুস্থ সমাজ গড়ি’ শীর্ষক আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। হলের প্রভোস্ট নাজিয়া হাসানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি জঙ্গিবাদ শব্দের অর্থ থেকে শুরু করে দীর্ঘ ইতিহাস এবং নেপথ্য কারণগুলো তুলে ধরেন। তিনি দেশে দেশে, ধর্ম, বর্ণ, প্রভাব, প্রতিপত্তি, দখলদারিত্ব, সন্ত্রাসসহ বিভিন্ন কারণ উদাহরণসহ উল্লেখ করেন। তিনি বলেন ঠান্ডা মাথায় খুন করাটাও এক ধরনের জঙ্গিবাদ।

তিনি আরও বলেন যারা ইসলামের নামে জঙ্গি মতবাদ প্রচার করে, যারা মানুষ খুন করে, সন্ত্রাস সৃষ্টি করে তারা আসলে প্রকৃতপক্ষে ইসলাম ধর্ম বোঝে না, তারা ইসলামের মর্মবাণী উপলব্ধি করে না। ইসলাম এমন এক ধর্ম যে ধর্মে খুন করা তো দূরের কথা এটা ভাবাও যায় না। ইসলাম শান্তির ধর্ম, সহজ সরল পথের ধর্ম। ইসলামে আত্মহত্যা নিষিদ্ধ, ব্যভিচার নিষিদ্ধ। অন্য ধর্মেও তাই। সকল ধর্মের মূল বাণীই হচ্ছে মানব কল্যাণ।

তিনি বলেন বাঙালির হাজার বছরের ধর্মীয় ও সাংস্কৃতি ঐতিহ্যে সকল ধর্মের মানুষ মিলেমিশে বসবাস, সাংস্কৃতিক আবহে বেড়ে ওঠা, উদযাপনের রীতিতে অভ্যস্ত। অসাম্প্রদায়িক চেতনাকে লালন করে এসেছে। তাই আমাদের এ ঐতিহ্যকে সমুন্নত রাখতে হবে এবং জঙ্গীবাদ সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সবসময়ই সোচ্চার থাকতে হবে। তিনি শিক্ষার্থীদেরকে লেখাপড়ার পাশাপাশি বেশি করে সহশিক্ষামূলক কার্যক্রমে অংশগ্রহণের আহবান জানান যাতে তারা সবসময় মানসিক প্রশান্তিতে থাকে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, রেজিষ্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর খান গোলাম কুদ্দুস এবং ছাত্রবিষয়ক পরিচালক প্রফেসর শরীফ হাসান লিমন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন হলের সহকারী প্রভোস্ট নিসাদ নাসরীন। শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে নিবন্ধ পাঠ করেন রুমা খাতুন ও উম্মে কানিজ ফাতিমা। এর আগে উপাচার্য অপরাজিতা হলের লোগো উন্মোচন করেন। লোগোটির ডিজাইন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি ডিসিপ্লিনের শিক্ষার্থী মালিহা জামান লিমা। পরে হলের আবাসিক ছাত্রীরা একটি নাটিকা মঞ্চস্থ করেন। এসময় বিভিন্ন স্কুলের ডিন, ডিসিপ্লিন প্রধান, সংশ্লিষ্ট হলের সহকারী প্রভোস্ট, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।