খুবিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযাপন

0
679

বিজ্ঞপ্তি : যথাযোগ্য মর্যাদা ও বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে আজ ২৬ মার্চ খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস-২০১৮ উদযাপিত হয়। এ উপলক্ষে সকাল ৬ টায় শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ ভবন (নতুন প্রশাসন ভবনের সাম্মুখে) উপাচার্য কর্র্তৃক জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিবসের কর্মসূচি শুরু হয়। সকাল ৬-৩০ মিনিটে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য অদম্য বাংলায় উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেন। এর পরপরই খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ, বঙ্গবন্ধু পরিষদ, খানজাহান আলী হল, অপরাজিতা হল, খানবাহাদুর আহছানউল্লা হল, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল, বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল, ন্যাশনালিস্ট টির্চাস এসোসিয়েশন, স্থাপত্য, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং, ব্যবসায় প্রশাসন, নগর ও গ্রামীণ পরিকল্পনা, ফরেস্ট্রি এন্ড উড টেকনোলজি, ফিশারিজ এন্ড মেরিন রিসোর্স টেকনোলজি, বায়োটেকনোলজি এন্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং, এগ্রোটেকনোলজি, ইলেক্ট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং, পরিবেশ বিজ্ঞান, ফার্মেসি, গণিত, সায়েল ওয়াটার এন্ড এনভায়রনমেন্ট, ইংরেজি, অর্থনীতি, সমাজ বিজ্ঞান, পদার্থবিজ্ঞান, রসায়নবিজ্ঞান, বাংলা, পরিসংখ্যান, ডিভেলপমেন্ট স্টাডিজ, ড্রইং এন্ড পেইন্টিং, প্রিন্টমেকিং, ভাস্কর্য, মানবসম্পদ ও ব্যবস্থাপনা, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা, ইতিহাস ও সভ্যতা, আইন ও বিচার ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় স্কুল, শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউট, মডার্ণ ল্যাংগুয়েজ সেন্টার, অফিসার্স কল্যাণ পরিষদ ও শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলোর পক্ষে কৃষ্টি, চেতনা-৭১, নৃ-নাট্য, নৈয়ায়িক, বাঁধন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কর্মচারীবৃন্দ শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করে। পরে সকাল ৮ টায় মুক্তিযুদ্ধের ভাস্কর্য অদম্য বাংলার সম্মুখে জাতীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে একযোগে শুদ্ধসুরে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করা হয়। এসময় ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ, বিভিন্ন স্কুলের ডিন, পরিচালক, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত), ডিসিপ্লিন প্রধান, ছাত্র বিষয়ক পরিচালক, প্রভোস্টবৃন্দ, বিভাগীয় প্রধানসহ শিক্ষক শিক্ষার্থী কর্মকর্তা কর্মচারিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক শিল্পকর্ম ও পোস্টার প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী
সকাল সাড়ে আটটায় চারুকলা ইনস্টিটিউটে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক শিল্পকর্ম ও পোস্টার প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়। ভাস্কর্য ডিসিপ্লিন প্রধান (ভারপ্রাপ্ত) শেখ সাদী ভূইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রফেসর ড. আহমেদ আহসানুজ্জামান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন চারুকলা ইনস্টিটিউটের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক প্রফেসর ড. আফরোজা পারভীন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রিন্টমেকিং ডিসিপ্লিন প্রধান ড. নিহার রঞ্জন সিংহ। আরও বক্তব্য রাখেন ড্রইং এন্ড পেইন্টিং ডিসিপ্লিন প্রধান(ভারপ্রাপ্ত) মোঃ নজরুল ইসলাম। পরে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। প্রধান অতিথি বলেন, শিল্পকর্মের ধারনা পত্রে যে ভাবনাগুলো তুলে ধরা হয়েছে তা শিক্ষার্থীদের শিল্প চেতনায় এবং তাদের মননে বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ স্পর্শ করেছে। এ উপলব্ধি তাদের হৃদয় থেকে উত্থিত। নতুন প্রজন্মের এই শিক্ষার্থীরাই বাংলাদেশকে কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌছে দিতে পারবে। বিশেষ অতিথি বলেন, চারুকলা প্রধান কাজ শিক্ষার্থীদের মনন তৈরির জায়গাটায় গুরুত্ব পাওয়া। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থারা বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক শিল্পকর্ম ও পোস্টার প্রতিযোগিতায় যে কাজগুলো প্রদর্শন করেছে তা সত্যিই তাদের মনন ও চেতনায় ধারণের প্রয়াসের বহিঃপ্রকাশ। এর মাধ্যমেই বোঝা যায় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা দাঁড়িয়ে গেছে, সামনে অগ্রসর হচ্ছে। অনুষ্ঠান শেষে অতিথিবৃন্দ শিল্পকর্ম ও পোস্টার প্রতিযোগিতার গ্যালরি ঘুরে দেখেন। অতিথিবৃন্দ চারুকলার শিক্ষার্থীদের বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ শীর্ষক শিল্পকর্ম ও পোস্টার প্রতিযোগিতায় প্রদর্শীত শিল্পকর্মের ভুয়শী প্রশংসা করেন। এসময় কলা ও মানবিক স্কুলের ডিন, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) সহ ডিসিপ্লিন প্রধান ও বিভিন্ন ডিসিপ্লিনের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে বিকেল ৫ টায় মুক্তমঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।