খুবিতে কর্মচারীদের কম্পিউটার ব্যবহারে দক্ষতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষণের উদ্বোধন

0
453

বিজ্ঞপ্তি: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইনস্টিটিউশনাল কোয়ালিটি অ্যাসুরেন্স সেলের উদ্যোগে প্রশাসনিক কর্মকর্তা কাম-কম্পিউটার অপারেটর ও অফিস সহকারী কাম-কম্পিউটার অপারেটর কর্মচারীদের কম্পিউটার ব্যবহারে দক্ষতা বৃদ্ধি সংক্রান্ত তিনদিনব্যাপী এক প্রশিক্ষণ কর্মশালা গত শুক্রবার সকাল ৯টায় ড. সত্যেন্দ্রনাথ বসু একাডেমিক ভবনের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও কৌশল ডিসিপ্লিনের ল্যাবে শুরু হয়েছে।
প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষণের উদ্বোধন করেন উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ ফায়েক উজ্জামান। তিনি বলেন দক্ষতা বৃদ্ধিতে প্রশিক্ষণের বিকল্প নেই। খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়কে কোয়ালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিণত করতে আমরা যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি সেখানে সকল স্তরে দক্ষতা বৃদ্ধি করতে হবে। এ কারণে এ প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তিনি বলেন ফেসবুক বা এ ধরণের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের অনেক ইতিবাচক দিক আছে। কিন্তু সেদিক ব্যবহার না করে নেতিবাচক কাজেও ব্যবহার হচ্ছে। এটা আসক্তি হয়ে দাঁড়ালে ক্ষতির। দেখা যায়, আজকাল অফিসের সময়ে, কাজের সময়ে অনেকে হাতের কাজ, ফাইলের কাজ ফেলে অনেকেই ফেসবুকিং, মেসেজিং, ইউটিউব ব্যবহারে ব্যস্ত থাকেন। ফলে অফিসের কাজের গতি ও দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে তা বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়। মাদকের মতো ফেসবুকিং নেশাও গোটা জাতিকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে। আমাদের পাঠ্যবই ও জ্ঞানার্জনের জন্য অনান্য বইপুস্তক পড়া ও লেখার অভ্যাস কমিয়ে দিচ্ছে। তিনি বলেন সবকিছুর আগে আমরা যেনো অফিসের কাজে দক্ষতা অর্জন করতে পারি এবং জ্ঞানের পরিধি বাড়াতে পারি সেদিকে অগ্রাধিকার দিতে হবে।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ট্রেজারার প্রফেসর সাধন রঞ্জন ঘোষ। তিনি বলেন অফিসের কাজে দক্ষতার ওপরই প্রতিষ্ঠানের অগ্রগতি ও ভাবমূর্তি নির্ভর করে। অনেকে অফিসের কাজে দক্ষতা অর্জন করলেও আবার অনেকে এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে আছে। বিশেষ করে নোট উপস্থাপনের ক্ষেত্রে ভাষার দুর্বলতা ও বানান ভুল লক্ষণীয়। কম্পিউটারে দক্ষতা অর্জন এটা এখন অপরিহার্য হয়ে উঠেছে, সে সাথে ভাষাগত ও বানানগত দিকটিও গুরুত্ব দিতে হবে। আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. সমীর কুমার সাধুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন পর্বে উদ্দেশ্য তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কর্মশালার আয়োজক কমিটির আহবায়ক আইকিউএসির অতিরিক্ত পরিচালক প্রফেসর ড. কামরুল হাসান তালুকদার। আরও বক্তব্য রাখেন এ প্রশিক্ষণ পর্বের সমন্বয়ক সিএসই ডিসিপ্লিনের সহযোগী অধ্যাপক ড. কাজী মাসুদুল আলম। প্রশিক্ষণার্থীদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন প্রশাসনিক কর্মকর্তা কাম কম্পিউটার অপারেটর মোস্তফা আল মামুন প্রবাল। এ প্রশিক্ষণে বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬২জন কর্মচারী অংশ নিচ্ছেন।
সভাপতির বক্তব্যে প্রফেসর ড. সমীর কুমার সাধু বলেন এ প্রশিক্ষণ অফিসের কাজে দক্ষতা বৃদ্ধির প্রয়াস। আসলে দক্ষতা নিজের প্রচেষ্টার ওপরই মূলত নির্ভর করে। আইকিউএসি অফিসারদের জন্যও প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।