খালেদা জিয়া বিহীন নির্বাচনে ক্ষমতা কুক্ষিগত করার দিবাস্বপ্ন পূরণ হবে না : মঞ্জু

0
371

বিজ্ঞপ্তি : বিএনপি’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর শাখার সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম মঞ্জু বলেছেন, ‘মাদার অব ডেমোক্রেসি’ বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দী রেখে খালেদা জিয়া বিহীন আরেকটি জাল ভোট ও কেন্দ্র দখলের নির্বাচন করে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার দিবাস্বপ্ন পূরণ হবে না। সরকারি বাসভবনে বসে দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে সরকার প্রধানের বক্তব্যেও সেরকম দিবাস্বপ্নের ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। কিন্তু পাতানো নির্বাচনের ষড়যন্ত্র কোনো কাজে আসবে না। এখন সময় আছে, তিনবারের সাবেক সফল প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সম্মানজনক ব্যবহার করুন। তার সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করুন। অবিলম্বে তাকে নিঃশর্ত কারামুক্তি দিয়ে সকল দলের অংশগ্রহনে নির্দলীয় সহায়ক সরকারের অধীনে অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহনযোগ্য নির্বাচন দিন। অন্যত্থায় ইতিহাসের করুন পরিণতির জন্য হয়তো আজকের এইদিনটির জন্যই আফসোস করতে হতে পারে বলে হুশিয়ারি উচ্চারণ করেন তিনি।
মিথ্যা ও বানোয়াট প্রতিহিংসার মামলায় কারাগারে বন্দী বিএনপি চেয়ারপার্সন সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাদার অব ডেমোক্রেসী’ বেগম খালেদা জিয়ার জামিন স্থগিত ও তার মুক্তি বারবার বাঁধাগ্রস্ত করার সরকারি ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে সুচিকিৎসার দাবিতে কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে সোমবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত নগরীর কে.ডি ঘোষ রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ের সামনে অনুষ্ঠিত প্রতীক অনশন কর্মসূচির সভাপতির বক্তৃতাকালে তিনি উপরোক্ত কথাগুলো বলেছেন। বিকেলে শরবত পান করিয়ে অনশন ভঙ্গ করেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য সাবেক সংসদ সদস্য ভাষা সৈনিক এম নুরুল ইসলাম দাদুভাই।
বর্ষিয়ান রাজনৈতিক এম নুরুল ইসলাম দাদুভাই সরকার প্রধানকে ইঙ্গিত করে বলেন, ‘আপনার অধীনে জাতীয় নির্বাচন আর নেকড়ের অধীনে নিরীহ প্রাণীর নিরাপত্তা সমান কথা। বর্তমানে দেশে অবাধ সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের কোনো পরিবেশ নেই। আর বিএনপি চেয়ারপারসনকে ছাড়া বিএনপি জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেবে না। শেখ হাসিনার অধীনে বাংলাদেশে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হয়নি বা হবেও না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হতে হবে। ইনশাআল্লাহ্ দেশের জনগনকে সাথে নিয়ে যুগপৎ আন্দোলনের মাধ্যমে সেটাই হবে।
প্রতীকি অনশন চলাকালে বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন নগর বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান মনি, সাহারুজ্জামান মোর্ত্তজা, মীর কায়সেদ আলী, মোঃ মোশররাফ হোসেন, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, এ্যাড. আব্দুল্লাহ হোসেন বাচ্চু, সিরাজুল ইসলাম মেঝভাই, এ্যাড. এস আর ফারুক, এ্যাড. ফজলে হালিম লিটন, সৈয়দা রেহেনা ঈসা, স ম আব্দুর রহমান, মোঃ ইকবাল হোসেন, মোঃ ফকরুল আলম ও অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, সংহতি প্রকাশ করেন বিজেপি’র নগর সভাপতি এ্যাড. লতিফুর রহমান লাবু, খেলাফত মসজিসের মহানগর সভাপতি মাওলানা গোলাম কিবরিয়া, নগর জাতীয় পার্টির (জাফর) আহŸায়ক মোস্তফা কামাল, খেলাফত মজলিসের সেক্রেটারী মাওলানা আব্দুল্লাহ্ জুবায়ের, ড্যাব’র কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক ডাঃ সেখ আকতারুজ্জামান, অধিকার খুলনার সমন্বয়ক সাংবাদিক মুহাম্মদ নুরুজ্জামান, বিজেপি’র নগর সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দিন সেন্টু, সাংবাদিক মোঃ সোহরাব হোসেন ও আশরাফুল ইসলাম নূর, বিএনপি নেতাদের মধ্যে আরও বক্তৃতা করেন আরিফুজ্জামান অপু, সিরাজুল হক নান্নু, মোঃ মাহবুব কায়সার, নজরুল ইসলাম বাবু, মেহেদী হাসান দীপু, শফিকুল আলম তুহিন, শাহিনুল ইসলাম পাখী, আজিজুল হাসান দুলু, এ্যাড. নুরুল হাসান রুবা, ইকবাল হোসেন খোকন, এ্যাড. গোলাম মওলা, মোঃ মুজিবর রহমান, এ্যাড. মশিউর রহমান নান্নু, সাদিকুর রহমান সবুজ, এ্যাড. মুুজিবর রহমান, গিয়াস উদ্দিন বনি, শেখ সাদী, সাজ্জাদ আহসান পরাগ, মুর্শিদ কামাল, চৌধুরী হাসানুর রশিদ মিরাজ, একরামুল হক হেলাল, শামসুজ্জামান চঞ্চল, মাহবুব হাসান পিয়ারু, নাজমুল হাসান চৌধুরী সাগর, সেখ কামরান হাসান, এসএম কামাল হোসেন, শরিফুল ইসলাম বাবু, হেলাল আহমেদ সুমন, নিয়াজ আহম্মেদ তুহিন, নাজিরউদ্দিন আহমেদ নান্নু, মোঃ ইমাম হোসেন, হাসান মেহেদী রিজভী, জামিরুল ইসলাম, তরিকুল্লাহ খান, বদরুল আলম, এ্যাড. মোহাম্মদ আলী বাবু, শমসের আলী মিন্টু, শফিকুল ইসলাম শাহিন, হাবিব বিশ্বাস, জহর মীর, এ্যাড. আবুল হোসেন, আফসার মাস্টার, হাফিজুর রহমান মনি, মীর কবির হোসেন, এ্যাড. মফিজুল ইসলাম, আহসান উল্লাহ বুলবুল, আফজাল হোসেন পিয়াস, মেজবাউদ্দিন মিজু, রবিউল ইসলাম রবি, এ্যাড. এমদাদুল হক হাসিব, আঃ জব্বার, আবু সাঈদ শেখ, কাউন্সিলর হাসনা হেনা, ওহেদুজ্জামান, ইমতিয়াজ আলম বাবু, মোল্যা ফরিদ আহমেদ, তরিকুল ইসলাম তরু, নাসির খান, ওহেদুর রহমান দীপু, জাহিদ কামাল টিটু, আসলাম হোসেন, মোস্তফা কামাল, আঃ রাজ্জাক, আঃ আলিম, এ্যাড. ওমর আলী, এ্যাড. আসাদুল আলম, মাহবুব হোসেন, সরদার ইউনুচ, আরমান হোসেন, তৌহিদুল ইসলাম খোকন, লিটন খান, আব্দুর রহমান ডিনো, সাইফুল ইসলাম, নীরু কাজী, আনসার আলী, রোকেয়া ফারুক, আনজিরা খাতুন, আবুল কালাম আজাদ, শামসুদ্দীন প্রিন্স, কাজী মাহমুদ আলী, মহিদুল হক টুকু, মোহাম্মদ আলী, নেহিমুল ইসলাম নেহিম, জিএম রফিকুল হাসান, মনিরুল ইসলাম, মাজেদা খাতুন ও ময়েজউদ্দিন চুন্নু প্রমুখ। অনশন অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নগর বিএনপি’র প্রচার সম্পাদক এসএম আসাদুজ্জামান মুরাদ। শুরুতেই কোরআন তেলোয়াত করেন হাফেজ ওহেদুল ইসলাম।