খালেদাকে সাজা দিলে ‘সরকার পতনের আন্দোলন’: বিএনপি

0
234

টাইমস ডেস্ক : খালেদা জিয়াকে সাজা দিলে ‘সরকার পতন আন্দোলনের’ ডাক দেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিএনপি। রোববার রাজধানীতে অনুষ্ঠিত দুটি পৃথক আলোচনা সভায় দলের স্থায়ী কমিটির দুই নেতা এরকম হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন।

সেগুন বাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যালয় ভবনের স্বাধীনতা হলে দলটির স্থায়ী কমিটির সিনিয়র সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, যদি অন্যায়ভাবে বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কোনো রায় হয়, তাহলে এরপরে যে আন্দোলন হবে— সেটা সরকার পতনের আন্দোলন হবে। আমরা সেই আন্দোলন শুরু করব।

সেচ্ছাসেবক দল উত্তরের উদ্যোগে সংগঠনটির কারাবন্দি সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভূঁইয়া জুয়েল ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াসিন আলীর মুক্তির দাবিতে এই আলোচনা সভা হয়।

তিনি সরকারের উদ্দেশে বলেন, আমরা আর মুক্তি দাবি করব না। সরকারের পতন করেই আমরা এদেশে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার প্রতিষ্ঠা করে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে যাব। এদেশের মানুষ জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করবে।

আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায় ঘোষণা করবে ঢাকার পঞ্চম জজ আদালত। বিএনপি-জামায়াত জোটের ২০০১-২০০৬ মেয়াদে সরকারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া দুই কোটি ১০ লাখ টাকা আত্মসাতের এ মামলার প্রধান আসামি। অভিযোগ প্রমাণিত হলে এ মামলায় খালেদা জিয়ার সর্বোচ্চ যাবজ্জীবন কারাদন্ড হতে পারে। সে ক্ষেত্রে তিনি আগামী নির্বাচনে অংশ নেয়ার অযোগ্য হয়ে পড়বেন। বিএনপি অভিযোগ করে আসছে, ক্ষমতাসীনরা রাজনৈতিক প্রতিহিংসা থেকে ‘অন্তঃসারশূন্য’ এই মামলাকে এ পর্যন্ত নিয়ে এসেছে।

আলোচনা সভায় এ প্রসঙ্গে ড. মোশাররফ বলেন, আমরা সরকারকে স্পষ্টভাষায় বলে দিতে চাই, বেগম খালেদা জিয়াকে যদি অন্যায়ভাবে কোনো রায়ের মাধ্যমে জেলের অভ্যন্তরে ঠেলে দেয়া হয় তাহলে বিএনপির সিনিয়র নেতারা সবাই স্বেচ্ছায় গ্রেফতারবরণ হয়ে জেলে যেতে প্রস্তুত রয়েছেন।

নির্বাচন থেকে বাইরে রাখতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলার রায় তড়িঘড়ি করে দেয়া হচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির মতো আবার প্রহসনের আরেক নির্বাচন করতে বেগম খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে বানোয়াট ও মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে এখন সেই মামলার রায়ের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘আমরা সরকারকে বলতে চাই, আপনারা বৃথা চেষ্টা করছেন, এদেশে সে রকম নির্বাচন হতে দেয়া হবে না। দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও বিএনপি ছাড়া এদেশে নির্বাচন হবে না, হতে দেয়া হবে না।’

উত্তর সভাপতি ফখরুল ইসলাম রবিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক গাজী রেজওয়ান উল হোসেন রিয়াজের পরিচালনায় আলোচনা সভায় বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরফত আলী সপুসহ স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতারা বক্তব্য রাখেন।

জেল দিলে সরকার হটাও আন্দোলন: খালেদা জিয়াকে জেল দিলে সরকার হটাও আন্দোলন শুরু করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে ‘আরাফাত রহমান কোকো যুব ও ক্রীড়া সংসদ’র উদ্যোগে আলোচনা সভায় তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়াকে আপনারা (সরকার) জেল দেবেন, দেন। ভাবছেন আমরা কান্না-কাটি করব, না।

তিনি বলেন, বলে দিতে চাই, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির আগে আপনাদের (সরকার) পতন ঘটাব। সরকারের পতন হলেই এবার খালেদা জিয়া মুক্ত, সরকারের পতন হলে এবার বাংলাদেশের মানুষ মুক্ত হবে।

সংগঠনের সভাপতি আলমগীর হোসেন লাবুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আবদুস সালাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য শাহ নুরুল কবির শাহিন, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, জাসাস নেত্রী শাহরিন ইসলাম শায়লা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।