খাদ্যপণ্যে ভেজাল ও দূষণে দায়ীদের কঠোর শাস্তি প্রয়োজন : জনউদ্যোগ

0
297

খবর বিজ্ঞপ্তি:
নিরাপদ খাদ্য মানুষের মৌলিক অধিকার। কিন্তু ভেজালমুক্ত খাদ্য প্রাপ্তির সুযোগ ক্রমেই সংকুচিত হচ্ছে। তাই খাদ্যপণ্যে ভেজাল ও দূষণের জন্য দায়ীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনা প্রয়োজন। পাশাপাশি আইন অমান্য করে পার পাওয়ার সুযোগও দূর করতে হবে। মৌলিক খাদ্যপণ্য ও সেবাকে বাণিজ্যিকীকরণ হতে রক্ষা করা আজ সময়ের দাবি। সরকারি সংস্থা বিএসটিআইকে আধুনিকীকরণের পাশাপাশি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের তদারকি অভিযান জোরদার করা প্রয়োজন।
দেশের বিদ্যমান আইনগুলোকে যুগোপযোগী ও আরো কঠিন শাস্তির বিধান এবং বাস্তবে তা প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। খাদ্যপণ্যের মান নিয়ন্ত্রণে নীতিমালা কঠোর সহ উৎপাদন থেকে ভোক্তার হাত পর্যন্ত খাদ্যদ্রব্যের পৌঁছানোকে ক্রমাগত পরিদর্শনের আওতায় আনতে হবে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও সংস্থার মধ্যে সমন্বয়হীনতা দূর করে অসৎ খাদ্য ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে সোচ্চার হতে হবে। অসাধু ব্যবসায়ীদের পক্ষে সমগ্র ব্যবসায়ী সমাজের এক হয়ে কথা বলা বন্ধ করতে হবে। ভোক্তাদেরকে সংগঠিত হয়ে খাদ্য সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। ভোক্তাদের মাঝে সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। ভেজালযুক্ত খাদ্যদ্রব্য বয়কট করতে হবে। এসব কথা বললেন জনউদ্যোগ, খুলনার আলোচনা সভঅয় বক্তারা।
সোমবার বেলা ১১টায় খুলনা সিটি ল কলেজ মিলনায়তনে জনউদ্যোগ, খুলনার উদ্যোগে নিরাপদ খাদ্য ও ভেজাল রোধে করনীয় শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অ্যাডভোকেট শামীমা সুলতানা শীলুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার ম. জাভেদ ইকবাল। বিশেষ অতিথি ছিলেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের খুলনা বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. নাজমুল রাসটিকের নির্বাহী পরিচালক মোড়ল নুর মোহাম্মদ, জনউদ্যোগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক তারিক হোসেন, বাংলাদেশ কৃষকলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শ্যামল সিংহ রায়, ক্যাব খুলনার সাধারণ সম্পাদক নাজমুল আলম ডেভিড প্রমুখ। সাংবাদিক মহেন্দ্রনাথ সেনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আসাদুজ্জামান মিরন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন খুলনা নাগরিক সমাজের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ আ ফ ম মহসীন, মহানগর সিপিবির সভাপতি এইচ এম শাহাদৎ, ন্যাপের জেলা সাধারন সম্পাদক তপন কুমার রায়, নারী নেত্রী আফসানা ফেরদৌস কেকা, অধ্যক্ষ এম এন আলম সিদ্দিকী, কনসেন্স এর নির্বাহী পরিচালক সেলিম বুলবুল, এস এম মাহাবুবুর রহমান খোকন, ইসরাত আরা হীরা, আব্দুস সালাম ঢালী, জেসমিন জামান, নুরুন নাহার হীরা, ডা: মোসাদ্দেক হোসেন বাবলু, শেখ আব্দুল হালিম, কানাই মন্ডল প্রমুখ। অনুষ্ঠানের মুক্তিযোদ্ধা, গণমাধ্যমকর্মী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অংশগ্রহণ করেন।