কোস্টা রিকার সঙ্গে সুইজারল্যান্ডের নাটকীয় ড্র

0
335

স্পোর্টস ডেস্ক:
সুইজারল্যান্ডের ড্র করলেই চলতো শেষ ষোলোতে উঠতে। কোস্টা রিকার সঙ্গে ম্যাচটি সমতাতেই শেষ হলো। তবে জিততে পারত সুইসরা, চ্যালেঞ্জ জানাতে পারতো ব্রাজিলকে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার লড়াইয়ে। কিন্তু দুবার এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত তা ধরে রাখতে না পারায় গ্রুপ রানার্সআপ হয়ে নকআউট পর্বে উঠেছে ইউরোপের দলটি।

মস্কোয় বুধবার রাতে শেষ দিকে রোমাঞ্চ ছড়ানো ‘ই’ গ্রুপের ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। নিজনি নভগোরোদে একই সময়ে শুরু হওয়া অন্য ম্যাচে সার্বিয়াকে ২-০ গোলে হারিয়ে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে শেষ ষোলোয় উঠেছে ব্রাজিল।

স্পার্তাক স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে বল দখলে পিছিয়ে থাকলেও আক্রমণে আধিপত্য ছিল কোস্টা রিকার। তবে খেলার ধারার বিপরীতে ৩১তম মিনিটে গোল খেয়ে বসে মধ্য আমেরিকার দেশটি।

ডান দিক থেকে আক্রমণে ওঠা ইউভেন্তুস ডিফেন্ডার স্টেফান লিশ্টস্টাইনারের ক্রস ডি-বক্সে পেয়ে হেডে ছয় গজ বক্সের মুখে বাড়ান ফরোয়ার্ড ব্রিল এমবোলো আর জোরালো শটে বল জালে পাঠান মিডফিল্ডার ব্লেরিম জেমাইলি।

৫৬তম মিনিটে সমতায় ফেরে কোস্টা রিকা। শুরু থেকে দারুণ খেলতে থাকা ফরোয়ার্ড জোয়েল কাম্পবেলের কর্নারে লাফিয়ে নেওয়া হেডে গোলটি করেন ডিফেন্ডার কেনডাল ওয়াসটন। এবারের বিশ্বকাপে কোস্টা রিকার এটাই প্রথম গোল।

৭৯তম মিনিটে আবারও এগিয়ে যেতে পারতো সুইজারল্যান্ড। কিন্তু রিকার্দো রদ্রিগেসের ক্রস ডি-বক্সে ফাঁকায় পেয়ে সুযোগ নষ্ট করেন এমবোলো। দুই মিনিট পর তার ক্রসে খানিক আগে বদলি নামা ইয়োসিপ দার্মিচের হেড পোস্টে বাধা পায়।

৮৮তম মিনিটে আর ব্যর্থ হননি বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখের এই ফরোয়ার্ড। আরেক বদলি মিডফিল্ডার দেনিস জাকারিয়ার নিচু ক্রস পেয়ে দলকে ফের এগিয়ে দেন দার্মিচ।

পরের মিনিটে মিডফিল্ডার ব্রায়ান রুইস সুইজারল্যান্ডের ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। তবে ভিডিও ফুটেজ দেখে রুইস প্রথমে অফসাইড থাকায় পেনাল্টিটি বাতিল হয়ে যায়।

তবে যোগ করা সময়ে ফরোয়ার্ড জোয়েল কাম্পবেল প্রতিপক্ষের ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টি পায় কোস্টা রিকা। রুইসের জোরালো স্পট কিকে বল ক্রসবারে লেগে ফেরার পথে ওই দিকেই ঝাঁপিয়ে পড়া গোলররক্ষক ইয়ান জমেরের মাথায় লেগে জালে ঢোকে।

বিশ্বকাপের ইতিহাসে তৃতীয় গোলরক্ষক হিসেবে আত্মঘাতী গোল করলেন জমের।

আগামী মঙ্গলবার সেন্ত পিতার্সবুর্গে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে ‘এফ’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন সুইডেনের বিপক্ষে খেলবে সুইজারল্যান্ড। আর সামারা অ্যারেনায় ‘ই’ গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিলের শেষ ষোলোর প্রতিপক্ষ ‘এফ’ গ্রুপ রানার্সআপ মেক্সিকো।