কোলকাতার সাংবাদিকরা মুক্তিযুদ্ধের স্বাক্ষী শুধু নয় ইতিহাসের অংশ

0
480

মল্লিক সুধাংশু, কোলকাতা থেকে ঃ বাংলাদেশের তথ্য মন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের আকুণ্ঠ সমর্থন ছিলো এবং বিশেষ করে কোলকাতার সাংবাদিকরা এ ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করেছেন। যুদ্ধের সময় জীবনের ঝুকি নিয়ে তারা সংবাদ সংগ্রহ করে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জনমত গঠনে সহযোগিতা করেছেন। তাই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে এরা শুধু স্বাক্ষীই ছিলেন না, এরা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের অংশও বটে।
আজ শনিবার বিকেলে কোলকাতা প্রেসক্লাবে প্রেসক্লাবের সভাপতি শ্রী ¯েœহাশিষ সুর সংকলিত ও সম্পাদিত ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ কোলকাতার সাংবাদিকরা ও প্রেসক্লাব কোলকাতা’ মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক ঐতিহাসিক বইয়ের মোড়ক উম্মোচন অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন।
তথ্য মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে কোলকাতা প্রেসক্লাবের গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা ছিলো। এই ক্লাবেই মুক্তিযোদ্ধারা জমায়েত হয়ে বিশিষ্ঠ সাংবাদিকদের সাথে নিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে যান এবং পাকিস্থানী বাহিনীর নির্মম গণহত্যা, অত্যাচার, নির্যাতন ও ধ্বংসযজ্ঞ বিশ্বব্যাপী তুলে ধরেন তিনি মুক্তিযুদ্ধের সময় যে সকল সাংবাদিকরা সংবাদ সংগ্রহে বাংলাদেশে যান তথ্য মন্ত্রী তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
তিনি বলেন, দেশ ভাগ হয়েছিলো ধর্মের ভিত্তিতে। তবে আমাদের সংস্কৃতি কেউ ভাগ করতে পারেনি। এপার বাংলার সাথে ওপার বাংলার একটা আত্মিক সম্পর্ক রয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে দেশের উন্নয়ন কর্মকান্ড এবং অগ্রগতির কথা তুলে ধরে বলেন, পাকিস্থান ও ভারতের থেকে অনেক সূচকে বাংলাদেশ এখন এগিয়ে।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, কোলকাতা প্রেসক্লাবের সভাপতি ¯েœহাশিষ সুর। স্মৃতিচারণমুলক বক্তব্য রাখেন যুদ্ধকালিন প্রত্যক্ষদর্শী সাংবাদিক ড. পার্থ চট্টোপাধ্যয়, সুখরঞ্জন দাশগুপ্ত, উপেন তরফদার, দীলিপ চক্রবর্তী, মানষ ঘোষ এবং তরুন গাঙ্গুলি। কোলকাতাস্থা বাংলাদেশের উপ-দুতাবাসের উপ-রাষ্ট্রদূত তৌফিক হাসান, প্রেসসচিব মোবাখারুল ইকবালসহ কর্মকর্তাবৃন্দ, প্রেসক্লাবের সম্পাদক কিংশুক পারামানিক, কার্যনির্বাহী পরিষদের সদস্যবৃন্দসহ বিভিন্ন দুই দেশের গণমাধ্যমের বিশিষ্ঠ সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে তথ্য মন্ত্রী ড. হাসান মাহামুদ খুলনা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ ও খুলনা টিভি রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতিসহ কোলকাতার প্রবীণ সাংবাদিকদের হাতে কয়েকটি বই তুলে দেন।