কোরবানির পশুর হাট বসবে রাজধানীর ২০টি স্থানে

0
437

ইমন শিকদার:

ঈদুল আজহা উপলক্ষে এবার রাজধানীর ২০টি স্থানে কোরবানির পশুর হাট বসবে। এর মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন (ডিএসসিসি) এলাকায় বসবে ১৩টি হাট এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন (ডিএনসিসি) এলাকায় ৭টি। ইতিমধ্যে হাটগুলোর দরপত্র আহ্বান করেছে সংস্থা দুটি।

প্রতিবারের মতো এবারও অস্থায়ী পশুর হাটগুলোর ইজারা পেতে দৌড়ঝাঁপ শুরু করেছেন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা। এতে সুষ্ঠুভাবে দরপত্র চূড়ান্ত করা নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন সাধারণ ঠিকাদারেরা।

ডিএসসিসি এলাকার হাট

এবার দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেরাদিয়া বাজার, উত্তর শাহজাহানপুরের মৈত্রী সংঘ মাঠ, গোপীবাগের ব্রাদার্স ইউনিয়ন বালুর মাঠ, কমলাপুর স্টেডিয়াম-সংলগ্ন আশপাশের খালি জায়গা, হাজারীবাগ মাঠ, লালবাগের রহমতগঞ্জ খেলার মাঠ, কামরাঙ্গীরচর ইসলাম চেয়ারম্যান বাড়ি মোড়, আরমানিটোলা মাঠসংলগ্ন খালি জায়গা, ধূপখোলা ইস্ট এন্ড ক্লাব মাঠ, পোস্তগোলা শ্মশানঘাট, দনিয়া কলেজ মাঠ, শ্যামপুর বালুর মাঠ এবং সাদেক হোসেন খোকা মাঠ ও আশপাশের খালি জায়গায় হাট বসানোর জন্য দরপত্র আহ্বান করেছে কর্তৃপক্ষ।

ডিএনসিসি এলাকার হাট

অন্যদিকে ডিএনসিসি এলাকার মধ্যে উত্তরা ১৫ নম্বর সেক্টরের ২ নম্বর সেতুর পশ্চিমে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের উভয় পাশের ফাঁকা জায়গা, খিলক্ষেত বনরূপা আবাসিক প্রকল্পের খালি জায়গা, আশিয়ান সিটি হাউজিং, ভাটারা (সাইদ নগর), মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী সড়কসংলগ্ন (বছিলা) পুলিশ লাইনসের খালি জায়গা, মিরপুর সেকশন-৬ (ইস্টার্ন হাউজিং) খালি জায়গা এবং মিরপুর ডিওএইচএসের উত্তর পাশে সেতু প্রোপার্টি ও সংলগ্ন খালি জায়গায় অস্থায়ী পশুর হাটের দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে।

ডিএসসিসি ও ডিএনসিসির সম্পত্তি বিভাগ সূত্র জানায়, গত ২৮ জুন এই দুটি সংস্থা পৃথকভাবে কোরবানির অস্থায়ী পশুর হাটের দরপত্র আহ্বান করে। এর মধ্যে আগামীকাল সোমবার ডিএসসিসির অস্থায়ী পশুর হাটগুলোর দরপত্র ফরম বিক্রির শেষ দিন। পরদিন দুপুর সাড়ে ১২টার মধ্যে দরপত্র জমা দিতে হবে। এর কয়েক ঘণ্টা পরই দরপত্র খোলা হবে। এই দিন বিকেলেই ডিএসসিসির হাট-বাজার ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় দরপত্র চূড়ান্ত হবে। এ ছাড়া আগামী মঙ্গলবার ডিএনসিসির অস্থায়ী পশুর হাটের দরপত্র ফরম বিক্রি শেষ হবে। পরদিন দরপত্র জমা ও চূড়ান্ত করা হবে।

গত বছর ডিএসসিসির অধিকাংশ হাট ইজারা পেয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা। এর মধ্যে কামরাঙ্গীরচর হাটের ইজারা পেয়েছেন কামরাঙ্গীরচর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন সরকার। তিনি এর আগে টানা নয় বছর এ হাটের ইজারা পেয়েছেন। গোলাপবাগ মাঠে পশুর হাটের ইজারা পেয়েছিলেন ৪৯ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালাম। বংশালের সামসাবাদ ঈদগাঁহ মাঠের ইজারা পেয়েছিলেন এই থানা ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরা হোসেন। একইভাবে ডিএসসিসি ও ডিএনসিসির অন্য হাটগুলোর বরাদ্দ পেয়েছিলেন আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীরা।

ডিএসসিসির অস্থায়ী পশুর হাট ইজারা পেতে আগ্রহী দুজন ঠিকাদার বলেন, গত দুই বছর ক্ষমতাসীন দলের নেতাদের বাধার কারণে দরপত্রপ্রক্রিয়ায় অংশ নিতে পারেননি। একচেটিয়াভাবে ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীরা পশুর হাটের দরপত্র পেয়েছেন। কর্তৃপক্ষ তাদের সে সুযোগ করে দিচ্ছে। ফলে দরপত্রগুলো প্রতিযোগিতাপূর্ণ হচ্ছে না। এবারও সে আশঙ্কা আছে।

তবে ডিএসসিসি ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা বলেছেন, এবার ঠিকাদারদের জন্য দরপত্র জমা দেওয়া সহজ করতে ঢাকা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়সহ ডিএসসিসির পাঁচটি আঞ্চলিক অফিসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। যেকোনো ধরনের ঝামেলা এড়াতে ডিএসসিসি নজর রাখবে।