কেসিসি মেয়র প্রার্থী খালেকের হস্তক্ষেপে থামলো রেলওয়ের বস্তি উচ্ছেদ

0
617

নিজস্ব প্রতিবেদক, খুলনাটাইমস:
খুলনা নগরীর রেল লাইন সংলগ্ন বস্তি উচ্ছেদের বৃহস্পতিবার মাইকিং করা হয়। মাইকিং করে ছিনন্নমূল বাসিন্দাদের জায়গা ছেড়ে দিতে বলা হয়। অন্যথায় উচ্ছেদের মাধ্যমে তাদের কাছ থেকে জায়গা পুনরুদ্ধার করা হবে বলে রেল কর্তৃপক্ষ হুশিয়ারি জানান।

এমন সংবাদ শুনে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও কেসিসির মেয়র প্রার্থী আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেক তাৎক্ষনিকভাবে বৃহস্পতিবার রাতে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হকের সাথে ফোনললাপ করেন।
ফোনে তিনি মন্ত্রীকে বলেন, রেল লাইনের ওই জায়গায় দীর্ঘদিন ধরে গরীব ও অসহায় মানুষরা বাস করে আসছে। তাদের মধ্যে সকলেই দরিদ্র পরিবার। এরা ঘাট এলাকাসহ বিভিন্ন স্থানে কাজ করে কোনোমতে পরিবার নিয়ে দিন অতিবাহিত করছে। এদের মধ্যে অনেকেরই ঘর ভাড়া দিয়ে শহরে থাকার অবস্থা নেই। কিন্তু হঠাৎ করে রেল কর্তৃপক্ষের এই সিদ্ধান্ত অমাণবিকও বটে। কিছুদিন পর বর্ষা মৌসুম শুরু হবে এখন যদি এসব গরীব লোকদের উচ্ছেদ করা হয় তাহলে তারা রাস্তায় গিয়ে দাঁড়াবে। গরীব মানুষদের কথা চিন্তা করে এখনই উচ্ছেদ কাজ বন্ধ রাখতে হবে। পরে আমরা দুই পক্ষ বসে (রেলবস্তির বাসিন্দা ও রেল কর্তৃপক্ষ) আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেব। যাতে গরীব মানুষদের সুবিধা হয়।
রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক পুরো ঘটনা শুনে সাবেক মেয়র আলহাজ্ব তালুকদার আব্দুল খালেককে আশ্বস্ত করেন এখনই রেলবস্তি উচ্ছেদ করা হবে না। ওইসময়ই তিনি খুলনা রেলওয়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়ে উচ্ছেদ কাজ বন্ধ রাখতে বলেন। পরে তালুকদার আব্দুল খালেক রেলমন্ত্রীকে খুলনাবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানান। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এস এম কামাল হোসেন, নগর আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি কাজী এনায়েত হোসেন।