কেসিসি নির্বাচন-মেয়র পদে জামানত ২০ হাজার ও কাউন্সিলর পদে ১০ হাজার টাকা

0
355

নিজস্ব প্রতিবেদক:
খুলনা সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে মেয়র পদে ২০ হাজার টাকা এবং কাউন্সিলর পদে ১০ হাজার টাকা জামানত নির্ধারণ করা হয়েছে। ট্রেজারি চালানের মাধ্যমে ব্যাংকে অথবা রিটানিং অফিসারের কার্যালয়ে জামানতের অর্থ জমা দেওয়া যাবে। আগামী ১২ এপ্রিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। আগামী ১৫ মে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগে ২০১৩ সালের ১৫ জুন নির্বাচন হয়।
নির্বাচন অফিসের সূত্র জানায়, জামানতের পাশাপাশি মেয়র ও কাউন্সিলর প্রার্থীদের ভোটার তালিকা সম্বলিত সিডি বাবদ ৫০০ টাকা থেকে শুরু করে সাড়ে ১৫ হাজার টাকা পর্যন্ত ব্যাংক চালান জমা দিতে হবে। এর মধ্যে সাধারণ ওয়ার্ড প্রতি ৫০০ টাকা, সংরক্ষিত আসন (৩টি ওয়ার্ড) ১৫০০ টাকা, ৪টি ওয়ার্ডে ২ হাজার টাকা এবং মেয়র প্রার্থীদের জন্য ৩১টি ওয়ার্ড বাবদ সাড়ে ১৫ হাজার টাকার ব্যাংক চালান জমা দেওয়ার বিধান রয়েছে। ১৫ ও ১৬ এপ্রিল মনোনয়নপত্র বাছাই হবে।
নির্বাচন পরিচালনার জন্য খুলনাস্থ আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলীকে রিটার্নিং অফিসার, খুলনা জেলা সিনিয়র নির্বাচন অফিসার মো. হুমায়ুন কবীর, নড়াইল জেলা নির্বাচন অফিসার মো. আনিসুর রহমান, সাতক্ষীরা জেলা নির্বাচন অফিসার এম মাজহারুল ইসলাম, যশোর জেলা নির্বাচন অফিসার মো. নাজমুল কবীর, খুলনার দৌলতপুর থানা নির্বাচন অফিসার মো. মাহফুজুর রহমান, সোনাডাঙ্গা থানা নির্বাচন অফিসার মো. ওয়ালিউল­াহ, খুলনা সদর থানার নির্বাচন অফিসার এ টি এম শামীম মাহমুদ, ফুলতলা উপজেলা নির্বাচন অফিসার কলে­াল বিশ্বাস, যশোরের কেশবপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মো. বজলুর রশিদ ও ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলা নির্বাচন অফিসার মনোরঞ্জন বিশ্বাসকে সহকারী রিটার্নিং অফিসার হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী এ প্রতিবেদককে বলেন, সোমবার থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন প্রার্থীরা। তাদের ভোটার তালিকা সম্বলিত সিডি বাবদ ওয়ার্ড প্রতি ৫০০ টাকা হিসেবে জমা দিয়ে ব্যাংক চালান আনতে হবে।