কেসিসির বিএনপির সকল নির্বাচনী প্রচারণ বন্ধ

0
313

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন বিএনপি মনোনিত মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম মঞ্জু তার নির্বাচনী প্রচারণা বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

গত বুধবার রাত ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার ভোর ৫টা পর্যন্ত নগরজুড়ে পুলিশ ও ডিবির সদস্যরা ধানের শীষের নির্বাচনী প্রচারণায় জড়িত ছাত্রদল ও যুবদল খুলনা মহানগরী শাখার সাবেক সভাপতি জনাব শফিকুল আলম তুহিন, সোনাডাঙ্গা থানা বিএনপির সাধারন সম্পাদক আসাদুজ্জামান মুরাদ, যুবদল খুলনা মহানগরী শাখার সভাপতি মাহাবুব হাসান পিয়ারু, ১৮ নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি জনাব ওয়াহিদুজ্জামান হাওলাদারসহ অনেক নেতৃবৃন্দ সহ বিভিন্ন পর্যায়ের প্রায় অর্ধশত নেতাকর্মী গ্রেফতার করেছে। এছাড়া অসংখ্য নেতাকর্মীর বাড়িতে তল্লাশির নামে আতংক সৃষ্টি করা হয়েছে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দুর্ব্যবহার করা হয়েছে। নির্বাচনের কাজে যুক্ত থাকলে পরিণতি হবে ভয়াবহ বলেও ডিবি হুমকি দিয়েছে। এ পরিস্থিতিতে বিএনপির নির্বাচনী প্রচারণামূলক সব কার্যক্রম বৃহস্পতিবার সকাল থেকে স্থগিত ঘোষণা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার সকাল পৌনে ৯টায় মহানগরীর মিয়া পাড়া রোডে নিজের বাসভবনে সংবাদ সম্মেলন করে মঞ্জু নির্বাচনী কার্যক্রম স্থগিত করার ঘোষনা দেয়।এবং নেতাকর্মীদের গনগ্রেফতার এর প্রতিবাদে নির্বাচন কমিশন এর কাছে প্রতিবাদ স্মারকলিপি প্রদান, বেলা এগারোটায় দলীয় কার্যালয় জরুরী সভা ও বেলা বারোটায় সাংবাদিকদের সাথে প্রেস ব্রিফিং করবেন বলেও জানান।

এসময় নজরুল ইসলাম মঞ্জু আরো বলেন, সিটি কর্পোরেশনে পরাজয় নিশ্চিত ভেবে এই গ্রেপ্তার আতঙ্ক ছড়ানো হচ্ছে জনমনে। অবিলম্বে সকল বন্ধীদের মুক্তি দাবী করছি।গ্রেফতারকৃতদের না ছাড়া পর্যন্ত বিএনপির নির্বাচনী কার্যক্রম বন্ধ থাকবে।