কেএমপি’র সাড়াশি অভিযানে তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতাসহ গ্রেফতার ৫২

0
381
নিজস্ব প্রতিবেদক:
খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশ (কেএমপি)’র সাড়াশি অভিযানে ৫২ জন মাদক বিক্রেতা ও সেবনকারীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের কাছ থেকে ৪১৩ পিস ইয়াবা, ৩৫০ গ্রাম গাঁজা, ১টি গাঁজা গাছ ও ৪টি ধারালো চাপাতি উদ্ধার করেছে পুলিশ।
কেএমপির মিডিয় উইং এডিসি সোনালী সেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, একযোগে কেএমপির ৮টি থানায় নিয়মিত মাদক বিক্রেতাদের ধরতে অভিযান চলছে। মঙ্গলবার দিনব্যাপী অভিযানে ৫২ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে তালিকাভুক্ত মাদক বিক্রেতা ছাড়াও কিছু সেবনকারী রয়েছে।
সোনাডাঙ্গা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মমতাজুল হক জানান, সোনালী নগর বউ বাজার এলাকার কুখ্যাত মাদক স¤্রাজ্ঞী জানুর পুত্র রাজিবকে ৪ বোতল ফেনসিডিলসহ গ্রেফতার করা হয়েছে। এছাড়াও বানরগাতী থেকে দেবেনবাবু রোডের কুখ্যাত মাদক বিক্রেতা রেশমা বেগমকে ৫০ গ্রাম গাঁজা আটক করা হয়েছে। এছাড়াও ১১ পিস ইয়াবাসহ তন্ময়কে ও ১২ ১২ পিস ইয়াবাসহ মোঃ মামুনকে আড়াইশ বেড এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে।
খালিশপুর থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে সকাল সাড়ে ১০টায় নগরীর বড় বয়রা কলেজ রোড এলাকা থেকে মাদক বিক্রেতা মোস্তাফিজুর রহমান হাফিজকে (৪৫) ১৬ পিস ইয়াবাসহ গ্রেফতার করেছে। সকাল ১১টায় খালিশপুর কদমতলা মোড় থেকে ৩৫ গ্রাম গাঁজাসহ নূর ইসলাম (৩৮) ও শওকত হোসেন ওরফে সাখাকে (৩৫) গ্রেফতার করা হয়েছে।
হরিণটানা থানা পুলিশ জিরোপয়েন্ট এলাকা ও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক সরবরাহের অভিযোগে ৬ জনকে গ্রেফতার করেছে। এদের মধ্যে ইসলানগর এলাকার বাসিন্দা ও মাদক বিক্রেতা কবির হাওলাদার (৩৫) গাঁজাসহ গ্রেফতার করেছে। একই অভিযোগে জিরোপয়েন্ট এলাকা থেকে লাল মিয়ার দুই পুত্র মাদক বিক্রেতা হুমায়ুন কবীর (২৬) ও তারেক হাসানকে গ্রেফতার করেছে। গ্রেফতারকৃত তিনজনকে মাদক মামলায় আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। এছাড়াও খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে মাদক সরবরাহকারী মাদক বিক্রেতা আজমল হোসেন (২৬), মনির হোসেন (৩৫) ও মোঃ পিন্টুকে কেএমপি অধ্যাদেশে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন হরিণটানা থানার ওসি মোঃ নাসিম খান।