কপিলমুনি সহচরী বিদ্যামন্দিরের কৃতি সংবর্ধনায় যাত্রা শুরু শেখ ইমাম উদ্দীন এমপির

0
261

শেখ নাদীর শাহ্:
করোনাকালে অনাড়ম্বর তবুও প্রাণবন্ত অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে সম্পন্ন হল, শেখ ইমাম উদ্দীন সংসদের কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা আয়োজন।
শুক্রবার বিকেলে কপিলমুনি সহচরী বিদ্যামন্দিরের হল রুমে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সহচরী বিদ্যামন্দিরের প্রধান শিক্ষক মোঃ কবির আহম্মেদ। শেখ ইমাম উদ্দীন সংসদের যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ আব্দুল্লাহ আল মামুনের সফল সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, বিএমএ’র নেতা বিশিষ্ট চিকিৎক ডাঃ শেখ শহিদুল্লাহ। বিশেষ অতিথি ছিলেন, কপিলমুনি কলেজের সাবেক উপাধ্যক্ষ মোঃ আফসার আলী, কপিলমুনি আওয়ামীলীগের সভাপতি যুগোল কিশোর দে, সাবেক ব্যাংকার, বিশিষ্ট ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব ও সমাজ সেবক শেখ আঃ রশিদ, মেহেরুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রহিমা আক্তার শম্পা,কে,আর,আর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শেখ আব্দুর রহমান, ব্যবসায়ী নেতা এম.বুলবুল আহম্মেদ, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী এস,এম মুস্তাফিজুর রহমান পারভেজ, কপিলমুনি সিটি প্রেসক্লাব সভাপতি এম,আজাদ হোসেন,কপিলমুনি প্রেসক্লাব সভাপতি শেখ শামছুল আলম পিন্টু, দীপ্ত নিউজ২৪.কম’র সম্পাদক শেখ দীন মাহমুদ, প্রভাষক রেজাউল করিম খোকন। উপস্থিত ছিলেন, সাংবাদিক এইচ,এম শফিউল ইসলাম, তপন পাল, শেখ নাদীর শাহ্, শেখ আব্দুস সবুর প্রমূখ।
অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, শেখ ইমাম উদ্দীন সংসদের যুগ্ম আহ্বায়ক জি,এম আমিনুল ইসলাম। অনুষ্টানে কপিলমুনি সহচরী বিদ্যামন্দির ও মেহেরুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত এস এস সি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ ১০ জন শিক্ষার্থীকে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।
অনুষ্ঠানে সংসদের নেতৃবৃন্দ বলেন, কপিলমুনি, রায়সাহেব বিনোদ বিহারী সাধু,সহচরী বিদ্যা মন্দির ও শেখ ইমাম উদ্দীন নামগুলি যেন একই সুতোয় গাঁথা। আধুনিক কপিলমুনির রুপকার রায় সাহেব বিনোদ বিহারী সাধু তাঁর মায়ের নামে প্রতিষ্ঠা করেন কপিলমুনি সহচরী বিদ্যা মন্দির। আর শেখ ইমাম উদ্দীন ছিলেন,বিদ্যাপীঠের প্রধান শিক্ষক। শিক্ষকতা জীবনে সহচরী বিদ্যা মন্দিরকে নিয়ে গিয়েছিলেন এক অনন্য উচ্চতায়। মহান শিক্ষাগুরুর আলোয় আলোকিত হয়েছেন বহু ছাত্র। যারা দেশ ও দেশের বাইরে বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছেন। তারা এখনো কৃতজ্ঞ চিত্ত্বে স্মরণ করেন তাঁকে। তারা আরো বলেন, শেখ ইমাম উদ্দীন সংসদ তাঁর সৃষ্টিদের গু”ছ আবিষ্কার। যার ছায়াতলে বিভিন্ন সময় শিক্ষা ও সমাজ সেবায় সব সময় পাশে থাকবে। আজকের আয়োজনে কেবল যাত্রা শুরু হল তাদের।
এর আগে বিভিন্ন সময়ে সহচরীর সৃষ্টিরা একে একে সমবেত হলে এক আবেগঘণ পরিবেশের সৃষ্টি হয়। নতুন-পুরনো রতœদের সম্পৃক্ততায় তৈরী হয় এক ভিন্ন পরিবেশ।