কপিলমুনিতে মাদক বিরোধী টাস্কফোর্স কমিটির অবহিতকরণ সভা

0
449

শেখ নাদীর শাহ্,কপিলমুনি(খুলনা):
ছেলেধরা,বোরখা বাহিনী কিংবা রোহিঙ্গা সন্দেহে নীরিহদের অত্যাচারের সাথে সম্পৃক্ত কেউ ছাড় পাবেননা। এব্যাপারে জনসচেতনতা বৃদ্ধিতে সকলকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। গতকাল সোমবার সকালে উপজেলার কপিলমুনি মেহেরুন্নেছা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে মাদক বিরোধী টাস্কফোর্স কমিটির অবহিতকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন,পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুলিয়া সুকায়না।
গুজবে সৃষ্ট হুজুগে নিজেদের সম্পৃক্ত না করতে,সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোন প্রকার উষ্কানিমূলক স্ট্যাটাস দিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্ত সৃষ্টি করে কোথাও আইনশৃংখলা পরিস্থিতির যেকোন ধরণের অবনতি ঘটলে তার সম্পূর্ণ দায়ভার সেখানকার লোকদের নিতে হবে বলেও সতর্ক করেন তিনি। এসময় তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ভুল তথ্য ও গুজবে মত্ত উত্তেজিত জনতার হাতে ইতোমধ্যে পাগল ও মানষিক ভারসাম্যহীন অনেক মানুষ নির্যাতনের শিকার হয়েছেন। ছেলে ধরা সন্দেহে অসহায় মানুষগুলোকে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করেছে। এদের অনেকেই এখনো চিকিৎসাধীন রয়েছে।
গত দেড় সপ্তাহ ধরে এমন অনেক মানষিক ভারসাম্যহীন অসহায় মানুষকে অত্যাচার করা হয়েছে। যা চরম অমানবিক। তিনি বলেন, কাউকে সন্দেহ হলে পুলিশের কাছে সোপর্দ করুন, কিন্তু তাদের গায়ে আঘাত করবেন না। তিনি আরো বলেন, এখন পবিত্র রমজান মাস চলছে। সামনে ইদুল ফিতর। অসহায় ও ছিন্নমুল মানুষকে নিয়ে ভাবুন। সম্মিলিতভাবে তাদের পাশে গিয়ে দাঁড়াতে হবে। সেই ভাবনায় আমরা সকলে ব্যাস্ত সময় পার করছি। তিনি হুশিয়ারী দিয়ে বলেন, মাদক, ইভটিজিং, ভেজাল পণ্য বিক্রয়ে কোন প্রকার সুযোগ দেয়া হবে না। এসকল অপরাধে কেউ ধরা পড়লে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।
কপিলমুনি মেহেরুন্নেছা বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রহিমা আক্তার শম্পার সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, পাইকগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এমদাদুল হক শেখ, কপিলমুনি ইউপি চেয়ারম্যান কওসার আলী জোয়াদ্দার, সাংবাদিক পারভেজ মোহাম্মাদ, সাংবাদিক শেখ শামসুল আলম পিন্টু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজু, কোষাধ্যক্ষ এ কে আজাদ, এম আজাদ হোসেন। উপস্থিত ছিলেন, ইউপি সদস্য সদস্যাবৃন্দ, ব্যবসায়ী, শিক্ষকসহ এলাকার বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।