এফ আর জুট মিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড : আটটি গোডাউনের ফিনিশিং মালামাল-পাট পুড়ে ছাই

0
979

ফুলবাড়ীগেট (খুলনা) প্রতিনিধি:

খুলনা মহানগরীর খানজাহান আলী থানাধীন আফিলগেট বাইপাস সড়কের এফ আর জুট মিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে নবনির্মিত ইউনিট টু এর ফিনিশিং গোডাউন সহ ছোটবড় ৮টি গোডাউনের ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে এর মধ্যে থাকা সুতার স্পেল, পাট এবং টোন সম্পুন্ন পুড়েগেছে। প্রাথমিক ভাবে অগ্নিকান্ডের সুত্রপাত সম্পর্কে কর্তৃপক্ষ এবং ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তারা কেহ মুখ না খুললেও প্রত্যাক্ষদর্শী শ্রমিকরা জানান, ইউনিট-২(নবনির্মিত) এর পাটের গর্দা রাখার গোডাউন থেকে আগুনের সুত্রপাত। মুহুর্তের মধ্যে আগুন পার্শবর্তি গোডাউনে ছড়িয়ে পড়ে। অগ্নিকান্ডের খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের খুলনা সদর, টুটপাড়া, খালিশপুর, দৌলতপুর, খানজাহান আলী এবং নৌবাহিনীর মোট ৬টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রনে আনার কাজে যোগদেন। পানি সল্পতা এবং পর্যাপ্ত পানির অভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমান বেশি হয়েছে বলে স্থানিয়রা জানান।

 

বেলা পৌনে ৩টায় আগুনের সুত্রপাত শুরু হলেও এ রির্পোট লেখা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রনে আসেনি। এরই মধ্যে মিলের ছোটবড় মোট ১০টি গোডাউনের মধ্যে ৮টি গোডাউনের পাট এবং গত ৬ মাসের উৎপাদিত সুতার স্পেল এবং টোন সম্পুন্ন আগুনে পুড়েগেছে। আগুনের লিলিহা এতো প্রকট ছিলো যে অধিকাংশ গোডাউনের টিনের ছাউনি এবং ওয়াল ধষে পড়েছে। গোডাউনের পাশে অবস্থিত মিলের ফিনিশিং বিভাগের মেশিনম্যান মোঃ খলিল জানান, দুপুর পৌনে ৩টার দিকে মিলের পিছনের গত বছর নির্মিত মিলের ইউনিট-২ অর্থাৎ সাবেক ১০ নং গোডাউনের যেখানে পাটের গর্দা থাকে সেখান থেকে হঠাৎ দাউদাউ করে আগুন জ¦লতে দেখে শ্রমিকরা ছুটা ছুটি করতে থাকে । এ সময় শ্রমিকরা মিলের প্রশাসনিক ভবনে খবর দেন। পরবর্তিতে মিলের আগুন নির্বাপক ব্যবস্থা ব্যবহার করে কোন গতি না হওয়ায় এবং ফায়ার সার্ভিসের গাড়ীতে পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থা না থাকায় আগুন ব্যাপোক ভাবে ছড়িয়ে পড়ে।

 

মিলের মাননিয়ন্ত্রন বিভাগের সহকারী কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, আজ মঙ্গলবার সকালে মিলের ভিতরে নতুন করে ৬ ট্রাক পাট মিলের ৩,৪ ও ৫ নং গোডাউনে রাখা হয়েছে সেগুলো ও আগুনে পুড়েগেছে। এছাড়া নতুন নির্মিত গোডাউনে মিলের ইউনিট-২ গোডাউনটি বর্তমানে মিলের ৫/৬ মাসের উৎপাদিত ফিনিশিং(রেডিমাল) মালামাল রাখা ছিলো যা দেশের বাহিরে রপ্তনীর কথা ছিলো। তিনি আরো বলেন ৬ মাসের উৎপাদিত সুতার স্পেল ও টোন যা সম্পুন্ন পুড়েগেছে। মিলের একটি অসমর্থিত সুত্রে জানাগেছে মিলের মোট ১০টি গোডাউনের মধ্যে ৮টি গোডাউনের মালামাল সম্পুন্ন পুড়েগেছে। যার ক্ষয়ক্ষতির পরিমান তাৎক্ষনিক ভাবে মিডিয়ার কাছে মিল কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করে বলতে পারিনি। এ ব্যাপারেও মিল কর্তৃপক্ষ প্রাথমিক ভাবে কোন ধরনের তথ্য দিতে পারেনি।
উল্লেখ্য মিলটিতে শ্রমিক ছাটাই নিয়ে বেশ কিছুদিন যাবত উত্তেজনা ছিলো বলে মিলের শ্রমিক সুত্র গুলো থেকে জানা গেছে।