এখন কেউ টিকিট চায় না!

0
644

সিলেট স্টেডিয়ামের প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক আবু জায়েদ রাহির। অভিষেকের উত্তেজনা ঢাকা পড়ে গিয়েছিল আত্মীয়-স্বজন বন্ধু-বান্ধবদের ক্রমাগত টিকিটের চাহিদায়! তাতেই বুঝি হারিয়ে গিয়েছিল মনোযোগ, অভিষেক ম্যাচটিতে ৪ ওভারে দিয়েছিলেন ৪৫ রান! প্রায় আট মাস পর আবার সিলেটে দেশের হয়ে খেলতে নেমেছেন রাহি, জানালেন এবার আর কেউ টিকিট চেয়ে বিঘ্ন ঘটাচ্ছেন না মনঃসংযোগে। কারণ তিনি আগেই স্পষ্ট করে বলে দিয়েছেন, “এখন আর কেউ টিকিট চায় না। মাঝে সবাইকে বলেছি, ‘ভাই, খেলতে আসি, টিকিট দিতে আসি না। সব মিলিয়ে আমাকে দুইটা বা পাঁচটা টিকিট দেওয়া হয়। সবাইকে কিভাবে টিকিট দেব।’ এরপর কেউ আমার কাছে আর টিকিট চায় না।”
ছেলের টি-টোয়েন্টি অভিষেকে পরিবারের সদস্যদের অনেকে মাঠে এলেও টেস্ট অভিষেকের দিনে স্টেডিয়ামের কাছে বাসা হলেও কেউ আসেননি খেলা দেখতে। কারণ হিসেবে রাহির সরল স্বীকারোক্তি, ‘‘বিপিএলের সময় আমার আম্মু মাঠে এসেছিলেন। এরপর বলেছেন, ‘বাবা এখন থেকে তোকে টিভিতেই দেখব। টিভিতে তোকে দেখতে পারি, মাঠে এসে তো তোকে খুঁজেই পাই না! (স্টেডিয়ামে আসার) এত ঝামেলা নিতে পারব না।’ তাই বাসা থেকে কেউ আসেনি।’’ আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পথচলা অল্প দিনের। এরই মধ্যে তারকাখ্যাতি বেশ উপভোগ করছেন এই পেসার, ‘মাঝে মাঝে মনে হয়, ফ্যান থাকলে খুব ভালো। কিন্তু আমি যদি সিলেটে ঘুরতে পারি তাহলেই ভালো, আবার মাঝেমধ্যে মনে হয় ফ্যান না থাকলেই ভালো।’
সিলেটের প্রথম টেস্টের প্রথম বলটাই করেছেন রাহি, দেশের মাটিতে টেস্টে প্রথম উইকেট শিকারও নিজের শহরে। এই প্রাপ্তিটা উপভোগ করছেন ২৫ বছর বয়সী এই পেসার, ‘প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে আমারও অভিষেক, মাঠেরও। টেস্টেও হলো। আমি আনন্দিত। নাম লেখা থাকবে যে উইকেট পেয়েছি।’ ম্যাচের আগের দিন কথায় কথায় জানিয়েছিলেন, এই মাঠে খেলা প্রথম ম্যাচে ইনিংসে ৬ উইকেটসহ দুই ইনিংস মিলিয়ে ৮ উইকেট নিয়েছিলেন জাতীয় লিগের ম্যাচে। টেস্ট অভিষেকে প্রথম দিনটায় ১ উইকেট, আজ জিম্বাবুয়ের বাকি ৫ উইকেটের কয়টা নিতে পারবেন রাহি? তথ্য সূত্র: কালেরকন্ঠ