একরামের অডিও ম্যাজিস্ট্রেট খতিয়ে দেখছেন : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

0
310

অনলাইন ডেস্ক:

মাদকবিরোধী অভিযানের সময় র‍্যাবের সঙ্গে তথাকথিত ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত কক্সবাজারের টেকনাফ পৌরসভার কাউন্সিলর একরামুল হকের পরিবারের সরবরাহ করা অডিও ক্লিপটি এরই মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পৌঁছেছে এবং তার ভিত্তিতে প্রাথমিক তদন্তের কাজ শুরু হয়েছে।

আজ রোববার সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘কক্সবাজারে একরামুল হক নিহতের ঘটনার একটি অডিও ক্লিপ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এসেছে। সেটা আমরা শুনেছি। এখন একজন নির্বাহী হাকিমের (ম্যাজিস্ট্রেট) মাধ্যমে এর তদন্ত শুরু হয়েছে।’

গত ২৬ মে দিবাগত রাতে টেকনাফের বাহারছড়ার নোয়াখালীয়াপাড়া সংলগ্ন মেরিন ড্রাইভ সড়কে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পৌর কাউন্সিলর একরামুল হক নিহত হন বলে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) পক্ষ থেকে দাবি করা হয়। পুলিশের এই এলিট ফোর্সের আরো দাবি, তিনি তালিকাভুক্ত মাদক ব্যবসায়ী ছিলেন।

তবে পরিবারের পক্ষ থেকে টেকনাফ পৌর যুবলীগের সাবেক সভাপতি একরামুল নির্দোষ ছিলেন বলে দাবি করা হচ্ছে। পাঁচ দিন পর একরামুলের পরিবার সংবাদ সম্মেলন করে, ঘটনার সঙ্গে সম্পর্কিত একটি অডিও ক্লিপ গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে সরবরাহ করে। যা পরবর্তী সময়ে সামাজিক যোগযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেয়।

একরামুলের পরিবার এ ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্তও দাবি করেছে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপও কামনা করেছে একরামের পরিবার।

একপর্যায়ে র‍্যাবের সদর দপ্তরের পক্ষ থেকে ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখার’ কথা জানানো হয়। এ নিয়ে সর্বশেষ গতকাল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকও কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এই একরামের ব্যাপারটা… সে আমাদের পার্টিরই একজন কর্মী। এখানে কি সে ভিকটিম হয়ে গেল, অসহায় ভিকটিম—এটা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ ধরনের অভিযানে দু-একটা ভুল হতে পারে। আমি জানি না খতিয়ে দেখার আগে। এ বিষয়টাতে… এটা কোনো নিরীহকে শিকার করা হলো কি না?’

এর মধ্যে আজ সকালে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীতে স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে মাদকবিরোধী প্রচারের অনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

একরামুলের ঘটনাকে হত্যা মনে করেন কি না অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, ‘কোনো ধরনের হত্যাই আমাদের কাছে কাম্য নয়। যদি এটি কোনো পরিকল্পিত ঘটনা হয়ে থাকে, তাহলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

অপর এক প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘বিশেষ বাহিনীর তৈরি করা তালিকা ধরে মাদকবিরোধী অভিযান চালানো হচ্ছে। এই তালিকা অনেক লম্বা। এই তালিকা ধরে মাদকবিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকবে। যত দিন পর্যন্ত মাদক নির্মূল না হবে, তত দিন এই অভিযান চলবে।’

গত মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে সারা দেশে মাদকবিরোধী অভিযান চালাচ্ছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। এ সময় মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িতদের আটকের পাশাপাশি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ শতাধিক নিহতের ঘটনাও ঘটছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছে, নিহতরা সবাই মাদক ব্যবসায়ী।