একনজরে ভিলিয়ার্সের বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ার

0
342

স্পোর্টস ডেস্ক:

২০০৪ সালের ১৭ ডিসেম্বর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে পোর্ট এলিজাবেথে অভিষেক হয় দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেটের সবচেয়ে বিধ্বংসী ব্যাটসম্যানের। নাম আব্রাহাম বেঞ্জামিন (এবি) ডি ভিলিয়ার্স। তখনও ঘুণাক্ষরেও টের পাওয়া যায়নি কীভাবে এই ডান-হাতি আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে হইচই ফেলতে চলেছেন কয়েক বছরের মধ্যেই।

পরের বছর ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে টেস্ট সিরিজ শেষেই একদিনের ক্রিকেটে অভিষেক হয় এবির। সেই শুরু। তারপরে টানা ১৪ বছর প্রোটিয়া ক্রিকেট তো বটেই, বিশ্ব ক্রিকেটকে শাসন করেছেন। হয়েছেন কিংবদন্তি জয় করে নিয়েছেন লাখো ভক্তের মন।

টেস্ট ক্রিকেটে ১১৪টি ম্যাচ খেলে ১৯১টি ইনিংসে ৮ হাজার ৭৬৫ রান করেছেন ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার। সর্বোচ্চ রান ২৭৮ অপরাজিত। ব্যাটিং গড় ৫০.৬৬। শতরান করেছেন ২২টি ও অর্ধশতরান করেছেন ৪৬টি।

একদিনের ক্রিকেটে মাত্র ২২৮টি ম্যাচ খেলে ৯ হাজার ৫৭৭ রান করেছেন মিস্টার থ্রি সিক্সটি খ্যাত এই তারকা। ব্যাটিং গড় ৫৩.৫০। শতরান করেছেন ২৫টি অর্ধশতরান ৫৩টি।

টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে এবি দেশের হয়ে ৭৮টি ম্যাচ খেলে ১৬৭২ রান করেছেন ২৬.১২ গড়ে। সর্বোচ্চ ৭৯ রান। স্ট্রাইক রেট ১৩৫.১৬।

দুই ধরনের ক্রিকেট মিলিয়ে ৪৭টি শতরান করেছেন তিনি। তার মধ্যে একটি রয়েছে সবচেয়ে দ্রুততম। যা মাত্র ৩০ বলে ২০১৫ বিশ্বকাপের সময় করেছিলেন এবি।

সবাইকে অবাক করে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে আচমকাই সরে দাঁড়ালেন কিংবদন্তি। মাত্র ৩৪ বছর বয়সে ফর্মের চূড়ায় থাকতে থাকতে ক্রিকেট থেকে বিদায় জানিয়েছেন। তবে ঘরোয়া ক্রিকেট ও আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টি লিগগুলো তিনি খেলবেন বলেই মনে করা হচ্ছে।

বুধবার ডি ভিলিয়ার্স জানিয়ে দিয়েছেন, দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে টেস্ট, একদিনের ক্রিকেট ও টি-টোয়েন্টি থেকে তিনি সরে দাঁড়াচ্ছেন। নিজের টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি ভিডিও পোস্ট করে নিজের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দিয়েছেন এবি।