ঈদুল ফিতরে দুঃস্থদের চাল প্রাপ্তিতে ১২ শর্ত

0
329

নিজস্ব প্রতিবেদক :
পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে দুর্যোগ আক্রান্ত এলাকায় দুঃস্থ পরিবারের চাল প্রাপ্তিতে ১২টি শর্ত আরোপ করা হয়েছে। শর্ত পূরণ হলে জেলার দু’ পৌরসভা ও ৯ উপজেলার এক লাখ ৫৮ হাজার ৪৯৩ পরিবার ১০ কেজি করে চাল পাবে। শর্ত পূরণে ইউপি চেয়ারম্যানদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। সরকারি গুদামে মজুদ না থাকায় গেল ঈদুল আযহায় চাল ও কম কোনটাই দেওয়া হয়নি।
উল্লেখযোগ্য শর্তগুলো হচ্ছে- দিন মজুরের আয়ের ওপর নির্ভরশীল পরিবার, মহিলা শ্রমিক ও ভিক্ষাবৃত্তির ওপর নির্ভরশীল পরিবার, উপার্জনক্ষম পূর্ণ বয়স্ক পুরুষ নেই যে পরিবারে, উপার্জনশীল সম্পদ নেই যে পরিবারে, স্কুলগামী শিশুর উপার্জনের ওপর নির্ভরশীল যে পরিবার, অসচ্ছ¡ল মুক্তিযোদ্ধা পরিবার, অক্ষম প্রতিবন্ধি ও অস্বচ্ছ¡ল পরিবার, দু’ বেলা খাবার পায়না যে পরিবার, ক্ষুদ্র ঋণ নেয়না যে পরিবার, অর্থ ও খাদ্য সংকটে ভোগে এমন পরিবার, জমি অথবা ভিটে বাড়ি নেই যে পরিবারের।
জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা আজিজুল হক জোয়ার্দার ভিজিএফ খাদ্য শস্য সহায়তা প্রদান সম্পর্কিত এক দাপ্তরিক পত্রে উল্লেখ করেছেন, ৯ উপজেলা, পাইকগাছা ও চালনা পৌর এলাকায় তালিকাভূক্ত দুঃস্থদের মধ্যে ১০ কেজি করে চাল বিনামূল্যে বিতরণ করা হবে। জেলার আটটি এলএসডি থেকে চাল উত্তোলনের নির্দেশনা দেওয়া হচ্ছে। ঈদ উৎসবে ভিজিএফ’র খাদ্য শস্য বাবদ ১ হাজার ৫৮৪ মেট্টিক টন চাল বরাদ্দ করা হয়েছে। শর্ত পূরণ সাপেক্ষে চালনা পৌর সভায় ৩ হাজার ৮১, পাইকগাছা পৌরসভায় ৪ হাজার ৬২১, তেরখাদা উপজেলায় ১৩ হাজার ৯৭৭, রূপসা উপজেলায় ১৩ হাজার ৫৭১, ফুলতলা উপজেলায় ৯ হাজার ২০৮, পাইকগাছা উপজেলা ২৩ হাজার ৭৪৭, কয়রা উপজেলায় ২২ হাজার ৯৯১, দিঘলিয়া উপজেলায় ১২ হাজার ৩৯৮, ডুমুরিয়া উপজেলায় ২৩ হাজার ২৯৬, দাকোপ উপজেলায় ১৪ হাজার ৮১৪ ও বটিয়াঘাটা উপজেলায় ১৬ হাজার ৭৭৯ দুঃস্থ পরিবার ভিজিএফ’র চাল বিনামূল্যে পাবে।
দিঘলিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শম্পা কুন্ডুর দেওয়া তথ্য মতে, ছয় ইউনিয়নে দুঃস্থদের তালিকা করা হচ্ছে। ঈদের ৪/৫ দিন আগেই তাদের হাতে চাল পৌছাবে।
পাইকগাছা উপজেলার চাঁদখালি ইউপি চেয়ারম্যান জোয়াদুর রসুল বাবু এ প্রতিবেদককে জানান, শর্ত মেনে দুঃস্থদের তালিকা তৈরি দূরহ। ক্ষুধার্ত মানুষ বাঁচাতে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের শর্তবলী শিথিল করা প্রয়োজন।